৬ মাসের মধ্যে ভিক্ষুকমুক্ত হবে পানছড়ি: ইউএনও


নিজস্ব প্রতিবেদক, পানছড়ি:

জেলার পানছড়ি উপজেলাকে আগামী ৬ মাসের মধ্যে ভিক্ষুকমুক্ত ঘোষণা করা হবে। এরই মাঝে ২০ ভিক্ষুককে নগদ অর্থ ও গবাদি পশু প্রদান করা হয়েছে। তাছাড়া যারা ভিক্ষুক পেশায় রয়েছে তাদের বয়স্ক ভাতা, প্রতিবন্ধী ভাতা, উপজাতীয় ও অ-উপজাতীয়দের গুচ্ছগ্রামে অর্ন্তভুক্ত করাসহ নানাবিধ সুযোগ-সুবিধা প্রদান নিয়ে কার্যক্রম শুরু হয়েছে।

বুধবার (৪ জুলাই) সকাল সাড়ে ১১টায় ভিক্ষুক পুনর্বাসন কর্মসূচীতে গবাদিপশু ও নগদ অর্থ বিতরণকালে এসব তথ্যাদি জানান উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মুহাম্মদ আবুল হাশেম।

এ সময় অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, পার্বত্য জেলা পরিষদের সদস্য সতীশ চন্দ্র চাকমা, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মো. লোকমান হোসেন, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান রত্না তঞ্চঙ্গ্যা, একটি বাড়ি একটি খামারের সমন্বয়ক মো. রফিকুল ইসলাম, ইউপি চেয়ারম্যান মো. নাজির হোসেন, কিরণ ত্রিপুরা, বিজয় চাকমা, কালাচাঁদ চাকমা প্রমূখ।

এ সময় পুনর্বাসন কর্মসূচীতে অংশগ্রহণকারী ভিক্ষুক জানু সাঁওতাল, জলফা সাঁওতাল, আলফত বেগম, সোনাজান বেওয়া, জমিলা খাতুন ও বাসুতি ত্রিপুরা জানায়, আমরা যে সুযোগ-সুবিধা পাচ্ছি তাতে আর ভিক্ষাবৃত্তির প্রশ্নই আসেনা। সরকারের দেয়া গবাদি পশু আর পুঁজি দিয়েই আমরা স্বাবলম্বী হওয়ার চেষ্টা চালিয়ে যাবো।

উল্লেখ্য গত ১২ জুন বিকেলে পানছড়িতে এ কর্মসূচীর উদ্বোধন করেছিলেন ভারত প্রত্যাগত উপজাতীয় শরনার্থী বিষয়ক টান্সফোর্স চেয়ারম্যান ও স্থানীয় সাংসদ কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *