৯-১১ জুন ৩ পার্বত্য জেলায় ৭২ ঘন্টা হরতালের ডাক দিয়েছে ৫ বাঙ্গালী সংগঠন


01 Rangamati Pic-1

আলমগীর মানিক, রাঙামাটি:

পার্বত্য ভূমি কমিশন আইন সংশোধনী প্রস্তাব বাতিলের দাবিতে আগামী ৯ জুন থেকে ১১ জুন পর্যন্ত রাঙামাটিসহ তিন পার্বত্য জেলায় ৭২ ঘন্টার হরতালের ডাক দিয়েছে পার্বত্য চট্টগ্রাম সমঅধিকার আন্দোলনসহ ৫টি বাঙ্গালী সংগঠন। আজ রাঙামাটি শহরের স্থানীয় একটি হোটেলে ৫ বাঙ্গালী সংগঠনের উদ্যোগে আয়োজিত যৌথ সংবাদ সম্মেলনে এ হরতালের ঘোষণা দেওয়া হয়।

সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য রাখেন, পার্বত্য চট্টগ্রাম সমঅধিকার আন্দোলনের কেন্দ্রীয় নেতা মশিউল আলম হুমায়ুন, মোঃ ইউনুছ, পার্বত্য নাগরিক পরিষদের আহবায়ক বেগম নুর জাহান। সংবাদ সম্মেলনে পার্বত্য বাঙ্গালী ছাত্র পরিষদ, পার্বত্য ছাত্র ঐক্য পরিষদ, পার্বত্য যুব ফ্রন্টের নেতাকর্মীরা উপস্তিত ছিলেন। সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে বলা হয়, বর্তমান সরকার ক্ষমতায় আসার পর পার্বত্য চট্টগ্রামে আবারো অস্থিতিশীল পরিস্থিতি শুরু হয়েছে।

বিশেষ করে পার্বত্য চুক্তি বাস্তবায়নের নামে পার্বত্য অঞ্চলের বিভিন্ন এলাকা থেকে সেনা ক্যাম্প প্রত্যাহার করে নেয়ায় উপজাতী সন্ত্রাসীদের খুন, অপহরণ, চাঁদাবাজি ও সন্ত্রাসী কার্যকলাপ মারাত্বক ভাবে বেড়ে গেছে। তারই মাঝে আবারও নতুন করে শুরু করেছে পার্বত্য অঞ্চলের নিরীহ বাঙ্গালীদের ভূমিহীন করার পায়তারা। একারণে পুরো পার্বত্যবাসী আতংকে দিন কাটাচ্ছে।

সম্প্রতিক সময়ে উপজাতী নেতা খুনী সন্তু লারমা ও তার দোসরদের দাবীকৃত ভূমি কমিশন আইন একতরফা ভাবে মন্ত্রী সভায় চূড়ান্ত অনুমোদিত হয়ে জাতীয় সাংসদে পাশ হওয়ার অপেক্ষায়। সংশোধনী চূড়ান্ত প্রস্তাবে অবৈধ দখলদারদের নিয়ন্ত্রণে থাকা ভূমি পার্বত্য চুক্তির আলোকে উপজাতী শরনার্থীদের পূনর্বাসনে ব্যবহৃত হবে, সদস্য সচিব পদে একজন উপজাতী নিয়োগ দেওয়া হবে এবং যে কোন বিষয়ে সিদ্ধান্ত দেওয়ার জন্য ঐ প্রতিনিধিকে পূর্ণাঙ্গ কর্তৃত্বসহ বিভিন্ন সংবিধান ও বাঙ্গালীর স্বার্থ বিরোধী যে কালো আইন সংশোধনী আনার চূড়ান্ত  প্রস্তাব গৃহীত হয়েছে তার তীব্র নিন্দা জ্ঞাপন করছে পার্বত্য চট্টগ্রাম সম-অধিকার আন্দোলনসহ পার্বত্য চট্টগ্রামের সকল বাঙ্গালী সংগঠন ও পার্বত্যবাসী। অবিলম্বে এসব সংবিধান ও বাঙ্গালী স্বার্থ বিরোধী কালো ভূমি কমিশন আইন সংশোধনী চূড়ান্ত অনুমোদন অবিলম্বে বাতিলের দাবীতে ও জাতীয় সংসদে উপস্থাপন থেকে বিরত থাকার জন্য সরকার কাছে জোর দাবী জানাচ্ছি।

নেতৃবৃন্দ বলেন,  সরকারের কাছে আমাদের একান্ত আবেদন আমরা পার্বত্যাঞ্চলে ঐক্য শান্তি ও সম্প্রীতি চাই। পাহাড়ের ভূমি এই বাংলাদেশেরই ভূমি, ব্রিটিশ বা পাকিস্তানীদের দান নয়। এই ডিজিটাল যুগেও প্রথাগত ভূমি অধিকার অচল হওয়াতে জমির জরিপ, দাগ নং খতিয়ান নং রেকর্ড পত্র, এস এ জরিপ, সিএস খতিয়ান ইত্যাদি রেকর্ড বা দলিলের মাধ্যমে পাহাড়ের ভূমির অধিকার যাতে এখানে বসবাসকারী, উপজাতি ও বাঙালিরা সমানভাবে ভোগ করতে পারে সেজন্য ২৭ মে পাসকৃত ১৩ দফা সংশোধনী স্থগিত রেখে সমঅধিকার আন্দোলনসহ বাঙ্গালী বিভিন্ন সংগঠন এবং জনসংহতি সমিতিসহ পার্বত্যাঞ্চলের অন্যান্য সংগঠনসমূহের সাথে একটি শান্তি বৈঠকে বসার জন্য আপনাদের মাধ্যমে সরকারের নিকট বিনীত আবেদন জানাচ্ছি এবং পার্বত্য ভূমি কমিশন আইনের সংশোধনী প্রস্তাব মন্ত্রী পরিষদ সভায় একতরফাভাবে চূড়ান্ত অনুমোদনের প্রতিবাদে তিন পার্বত্য জেলায় আগামী ৯,১০ ও ১১ জুন ৭২ ঘন্টা হরতাল পালনের জন্য সকলের প্রতি আহবান জানাচ্ছি।

One thought on “৯-১১ জুন ৩ পার্বত্য জেলায় ৭২ ঘন্টা হরতালের ডাক দিয়েছে ৫ বাঙ্গালী সংগঠন

  1. এক দিন দুই দিন নয় দাবী আদায়ে অনির্দিষ্টকালের হরতাল আহ্বান করতে হবে। সরকারকে বুঝিয়ে দিতে হবে বাঙ্গালী তাদের স্বার্থ আদায়ে কতটা বদ্ধপরিকর।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *