parbattanews bangladesh

২০১৮ সালেই প্রত্যেকটি ঘরে বিদ্যুৎ যাবে: সরকারের ওয়াদা-পার্বত্য প্রতিমন্ত্রী

বাইশারী  প্রতিনিধি:

২০১৮ সালের মধ্যেই বাংলার প্রতিটি ঘরে বিদ্যুৎ পৌঁছে যাবে, এটা সরকারের ওয়াদা। দেশ এগিয়ে গেছে। বাংলাদেশ এখন খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণ। এগিয়ে গেছে শিক্ষায়। একটি মধ্যম আয়ের বাংলাদেশ অচিরেই বাস্তবায়ন হবে।

পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী ও বান্দরবান ৩০০নং আসনের সংসদ সদস্য বীর বাহাদুর উশৈসিং এমপি শনিবার দুপুর ২টায় বাইশারী উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজ মাঠে বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার বাইশারীতে সরকারের বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কর্মকাণ্ড উদ্বোধন করতে এসে জনসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে একথা বলেন।

এ উন্নয়নের ধারা বন্ধ করতেই শেখ হাসিনার উপর ১৭বার আক্রমন করেছিল স্বাধীনতা বিরোধীরা উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশ শেখ হাসিনার হাত ধরে সঠিক জায়গায় পৌঁছে গেছে। দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চল বান্দরবানের বাইশারীতেও এখন উন্নয়নের জোয়ার বইছে।

বীর বাহাদুর বলেন, ২৫ বছরে পাল্টে গেছে বাইশারী। কলেজ হয়েছে, স্কুল-মাদ্রাসা হয়েছে, রাস্তাঘাট-ব্রিজ সব কিছুই সম্পন্ন হয়েছে। তাছাড়া বাইশারীতে উন্নয়ন বঞ্চিত এলাকা চিহ্নিত করে সবগুলোকে আগামীতে উন্নয়নের আওতায় আনা হবে বলেও তিনি উপস্থিত জনসাধারণকে আশ্বস্থ করেন।

এছাড়া তিনি শীঘ্রই বাইশারী-ঈদগড় সড়ক বর্ধিত করার কথাও ঘোষণা করেন জনসভায়। জনসভার পূর্বে পার্বত্য প্রতিমন্ত্রী দেড় কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মিত নতুন ইউনিয়ন পরিষদ ভবন, বাইশারী বাজার হয়ে বটতলি বাজার পর্যন্ত ৩ কোটি টাকা ব্যয়ে কার্পেটিং দ্বারা উন্নয়নের রাস্তা, ফারিখালের উপর সাড়ে ৩ কোটি ব্যয়ে নির্মাণাধীন ব্রিজ, রাজঘাট ফারিখালের উপর ১৫ কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মাণাধীন রাবার ড্যাম, বটতলি বাজারের গর্জন খালের উপর ২ কোটি ব্যয়ে নির্মাণাধীন ব্রিজ, ৪৫ লক্ষ টাকা ব্যয়ে নির্মিত বাইশারী উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজের লালমোহন ছাত্রবাসসহ মোট ২৫ কোটি টাকার ৬টি প্রকল্প উদ্বোধন করেন। এছাড়া তিনি এমপিও ভূক্তসহ বাইশারী শাহ্ নুরুদ্দীন দাখিল মাদ্রাসাকে পরিপূর্ণ মাদ্রাসা প্রতিষ্ঠা করার প্রতিশ্রুতি দেন।

নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম আহ্বায়ক তসলিম ইকবাল চৌধুরীর পরিচালনায় অনুষ্ঠিত সুশিল সমাবেশে স্বাগত বক্তব্য প্রদান করেন বাইশারী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি জাহাঙ্গীর আলম বাহাদুর। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন বাইশারী ইউপি চেয়ারম্যান মো. আলম।

অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন, বান্দরবান জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও বান্দরবান জেলা পরিষদ সদস্য মোজাম্মেল হক বাহাদুর, কক্সবাজার জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক নাজনিন সরওয়ার কাবেরী, বান্দরবান জেলা আওয়ামী লীগের সভানেত্রী জুহুরা খাতুন, নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলা আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক ও বান্দরবান জেলা পরিষদ সদস্য ক্যাচিং চাক, আওয়ামী লীগ নেতা মংয়ে চাক, নাইক্ষ্যংছড়ি থানার ওসি (তদন্ত) জায়েদ নুর প্রমুখ।

এছাড়া অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. ইয়াছির আরাফাত, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক বান্দরবান (রাজস্ব) শফিউল আলম, বান্দরবান জেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ সভাপতি আলহাজ্ব শফিকুর রহমান, সাধারণ সম্পাদক ইসলাম বেবী, সাংগঠনিক সম্পাদক ও জেলা পরিষদ সদস্য ক্যাচাপ্রু মার্মা,  বাইশারী ইউনিয়ন যুবলীগ সভাপতি আবুল কালাম, সাধারণ সম্পাদক নুরুল আলম, ইউনিয়ন ছাত্রলীগ সভাপতি এসএন.কে রিপন, সাধারণ সম্পাদক হ্লাথোয়াইচিং মার্মা।