হ্যাটট্রিক শিরোপা জিতে রিয়ালের ইতিহাস



পার্বত্যনিউজ ডেস্ক:

খেলার ৩০ মিনিটেই সার্জিও রামোসের ফাউলের শিকার হয়ে চোখের জলে মাঠ থেকে বেরিয়ে যান দলের সেরা তারকা মোহাম্মদ সালাহ। ততক্ষণে ম্যাচটাও যেন বেরিয়ে গেল লিভারপুলের হাত থেকে। শেষ পর্যন্ত সালাহ’র এই অশ্রুসিক্ত ছবিটাই যেন ম্যাচের প্রতীক হয়ে দাঁড়াল। লিভারপুলকে কাঁদিয়ে প্রথম দল হিসেবে টানা তিনবার উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জয়ের অবিস্মরণীয় কীর্তি গড়ল রিয়াল মাদ্রিদ।

শনিবার ইউক্রেনের কিয়েভে ইংলিশ ক্লাব লিভারপুলকে ১-৩ গোলে হারায় স্প্যানিশ জায়ান্ট রিয়াল মাদ্রিদ। সেইসঙ্গে ইউরোপ সেরার এই টুর্নামেন্টের টানা হ্যাটট্রিক শিরোপা উঁচিয়ে ধরলেন রামোস-রোনালদোরা। এদিন লস ব্ল্যাঙ্কোসদের হয়ে জোড়া গোল করেন গ্যারেথ বেল। আর বাকি গোলটি আসে করিম বেনজেমার পা থেকে। লিভারপুলের জার্সিতে সান্ত্বনার গোলটি আসে সাদিও মানের পা থেকে।

অথচ কী দুর্দান্ত শুরুটাই না করেছিল লিভারপুল। ম্যাচের শুরু থেকেই আক্রমণাত্মক খেলতে থাকে জার্গেন ক্লপের শিষ্যরা। প্রথমার্ধের ৭ মিনিটেই দারুণ এক আক্রমণ করে লিভারপুল। এর পাঁচ মিনিটের মধ্যেই আরও কয়েকবার সমষ্টিগতভাবে আক্রমণ করে রিয়াল মাদ্রিদের রক্ষণভাগকে নাজেহাল করে তুলেন সালাহ-ফিরমিনোরা। ২৩ মিনিটেও কেইলর নাভাস অসাধারণ এক সেভ না করলে তো এগিয়েই যেত ইংলিশ জায়ান্টরা।

কিন্তু ৩০ মিনিটেই কপাল পুড়লো লিভারপুলের। রিয়াল মাদ্রিদের স্প্যানিশ ডিফেন্ডার সার্জিও রামোসের ফাউলের শিকার হয়ে মাঠ ছাড়তে বাধ্য হন লিভারপুলের সেরা তারকা মোহাম্মদ সালাহ। মিশরীয় ফরোয়ার্ডকে হারিয়ে শুরুর সেই উদ্দাম যেন কিছুটা হলেও থেমে যায় অলরেডদের। তারপরও লড়াই চালিয়ে যায় জার্গেন ক্লপের শিষ্যরা। তবে ছেড়ে কথা বলেনি বর্তমান চ্যাম্পিয়ন রিয়াল মাদ্রিদও। যে কারণেই প্রথমার্ধ শেষ হয় গোলশূন্য ড্র’তে।

দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতেই যেন দুর্বার রিয়াল। কিন্তু দুর্ভাগ্য ইস্কোর। রিয়ালের স্প্যানিশ মিডফিল্ডারের অসাধারণ শট গিয়ে বাধা পায় বারে। তবে ম্যাচের ৫১ মিনিটেই গোলরক্ষক ক্যারিয়াসের ভুলে লিভারপুলের জালে বল জড়ান রিয়ালের ফরাসি তারকা করিম বেনজেমা।

তবে এগিয়ে যাওয়ার এই উচ্ছ্বাস খুব বেশিক্ষণ ধরে রাখতে পারেনি স্প্যানিশ ক্লাবটি। ৫৫ মিনিটেই যে গোল করে লিভারপুলকে সমতায় ফেরান দুর্দান্ত ফর্মে থাকা সাদিও মানে।

তারপরও লড়াই চলে হাড্ডাহাড্ডি। ৬০ মিনিটে ইস্কোর শট দুর্দান্তভাবে রুখে দেন লিভারপুলের গোলরক্ষক। কিন্তু তারপরই স্প্যানিশ মিডফিল্ডারের বদলী খেলোয়াড় হিসেবে গ্যারেথ বেলকে মাঠে নামান জিদান। কোচের আস্থার প্রতিদান দিতে খুব বেশিক্ষণ সময় নেননি ওয়েলস তারকা। ৬৩ মিনিটে দুর্দান্ত এক বাইসাইকেল কিকে গোল করে রিয়ালকে আবারও এগিয়ে দেন বেল।

৬৯ মিনিটে সুযোগ পেয়েছিল লিভারপুল। কিন্তু এবার বাঁধা হয়ে দাঁড়ায় গোলপোস্ট। তবে দ্বিতীয়ার্ধের ৮৩ মিনিটে লিভারপুলের জালে আবারও বল জড়ান গ্যারেথ বেল। এবার ৩০ গজ দূর থেকে রিয়ালের এই তারকা দুর্দান্ত এক শট করে লিভারপুলের গোলকিপার ক্যারিয়াসকে বোকা বানিয়ে দলের ব্যবধানটাকে নিয়ে যান ৩-১ এ। সেইসঙ্গে ইতিহাসের প্রথম দল হিসেবে টানা তিনবার ইউরোপ সেরার মুকুট উঁচিয়ে ধরে রিয়াল মাদ্রিদ।
সূত্র: প্রিয়.কম।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *