হাসপাতালের সীটে শ্বশুরকে জুতা দিয়ে পেটালেন পুত্রবধু


কুতুবদিয়া প্রতিনিধি:

পিতাপুত্র মারামারি দিয়ে হাসপাতালে ভর্তির পর সীটে গিয়ে নিজের স্যান্ডেল দিয়ে শ্বশুরকে পেটালেন পুত্রবধু।

সোমবার (২৭ আগস্ট) কুতুবদিয়া উপজেলা স্বস্থ্য কমপ্লেক্সে এ ঘটনা ঘটে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, উত্তর বড়ঘোপ গ্রামের মৃত আব্দু রশীদের পুত্র আলী আহমদ ও তার জৈষ্ঠ পুত্র আব্দু শুক্কুরের সাথে পারিবারিক কলহে সোমবার মারধর হয়। এ ঘটনায় আলী আহমদ(৬৫), তার স্ত্রী সাফিয়া বেগম(৫৫) ও পুত্র আব্দু শুক্কুর(৩৪) আহত হয়। পরে ৩ জনকেই উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়।

বিকাল সাড়ে ৪টার দিকে আব্দু শুক্কুরের স্ত্রী জেসমিন আক্তার (২৮) হাসপাতালে স্বামীকে দেখতে এসে ভর্তিকৃত শ্বশুরের সীটে গিয়ে নিজের স্যান্ডেল দিয়ে পেটাতে থাকে বলে পাশের সীটের রোগীরা জানান।

এসময় হাসপাতালে রোগীদের মাঝে আতংক ছড়িয়ে পড়ে। রোগী দেখতে আসা স্থানীয় মো. জকরিয়া (আমীন) জানান, কোন কিছু বুঝে ওঠার আগেই ওই মহিলা তার শ্বশুরকে জুতা দিয়ে পেটাতে থাকেন। পরে ডাক্তার, নার্স, রোগীর স্বজনেরা এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনেন।

এ ঘটনায় ভর্তিকৃত আলী আহমদ ও তার স্ত্রী ভয়ে সীট কেটে চিকিৎসা না নিয়েই চলে যান বলে একাধিক রোগী জানান। জেসমিন আক্তার বলেন, তার শ্বশুর, শ্বাশুড়ী, ননদগণ তার স্বামীকে মারধর করেছে। এই ক্ষোভে তিনি হাসপাতালে ম্বশুরকে মারতে যান ঠিকই তবে মারতে পারেননি বলে জানান।

হাসপাতালের ভারপ্রাপ্ত মেডিকেল অফিসার ডা. মো. জায়নুল আবেদীন বলেন, পারিবারিক ঝগড়ায় আহত হয়ে ভর্তি রোগীর ওপর অপর পক্ষের লোকের হামলার চেষ্টা করলে দ্রুত তারা নিয়ন্ত্রণ করেন। উভয় পক্ষকে শাসন করা হয়। তবে ভর্তি আলী আহমদ ও তার স্ত্রী সাফিয়া নিজের ইচ্ছায় বাড়িতে গিয়ে চিকিৎসা নেবে এই বলে সীট কেটে চলে যান বলে তিনি জানান।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *