সেন্টমার্টিনদ্বীপে ১৫ কোটি টাকার ইয়াবা ও ফিশিং ট্রলারসহ মিয়ানমারের ছয় মাঝিমাল্লা আটক


টেকনাফ প্রতিনিধি:

টেকনাফ উপজেলার সেন্টমার্টিনদ্বীপের কাছাকাছি বঙ্গোপসাগরে অভিযান চালিয়ে ইয়াবাসহ ১৫ কোটি টাকা মূল্যের ৩ লাখ পিস ইয়াবা ও একটি মাছ ধরার ফিশিং ট্টলারসহ মিয়ানমারের ৬ নাগরিককে আটক করেছে কোস্টগার্ড সদস্যরা।

(৩ আগষ্ট) বৃহস্পতিবার ভোরে রাতে সেন্টমার্টিনের ছেড়াদ্বীপ এলাকায় ইয়াবাসহ মাঝিমাল্লাকে আটক করা হয়েছে।

আটককৃতরা হলেন, মিয়ানমারের মংডু’র মৃত সুলতান আহাম্মদের ছেলে রহিম উল্লাহ (৫০), মৃত কাদের আহাম্মদের ছেলে এনামুল হোসেন (১৬), মকবুল হোসেনের ছেলে নাজির আহমেদ (৬৫), মৃত হাবিরুলের ছেলে মো. করিম (১৭), মোহাম্মদ মো. রফিক (১৪) ও মৃত রহিম উল্লাহের ছেলে মো. ফারুক (১৫)।

টেকনাফ কোস্টগার্ড স্টেশন কর্মান্ডার লে. এম জাফর ইমাম সজীব জানান, একটি মাছ ধরার ফিশিং ট্রলার নিয়ে মিয়ানমার থেকে ইয়াবা আসার গোপন সংবাদে একটি বিশেষ টিম সেন্টমার্টিনের ছেড়াদ্বীপের পূর্বে অবস্থান নেয়। এসময় মিয়ানমারের সীমান্ত থেকে আসা একটি ট্রলারকে থামানো সংকেত দেয়। ট্রলারটি সংকেত অমান্য করে দ্রুত পালানোর চেষ্টা করে। এসময় কোস্টগার্ড সদস্যরা ৩ রাউন্ড ফাঁকা গুলি বর্ষণ করলে  অবস্থা বেগতিক দেখে পাচারকারীরা আত্মসমর্পন করতে বাধ্য হয়। আটক ট্রলারে তল্লাশি চালিয়ে ইঞ্জিনের বক্সের ভেতর থেকে একটি বস্তা উদ্ধার করা হয়। এসময় মিয়ানমারের ৬জন মাঝিমাল্লাকে আটক করা হয়।

তিনি আরো জানান,  উদ্ধারকৃত বস্তার ভেতর থেকে ৩ লাখ পিস ইয়াবা পাওয়া যায়। যার মূল্য ১৫ কোটি টাকা। আটককৃতদের বিরুদ্ধে মাদক ও অবৈধ অনুপ্রবেশ করার দায়ে পৃথক দু’টি মামলা দিয়ে টেকনাফ মডেল থানায় সোর্পদ করা হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *