সীতাকুণ্ডে দুই ত্রিপুরা কিশোরী হত্যায় জড়িত আবুল আটক


পার্বত্যনিউজ ডেস্ক:

চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডে দুই ত্রিপুরা কিশোরী হত্যায় জড়িত বখাটে আবুল হোসেনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে হত্যাকাণ্ডের কথা স্বীকার করেছে আবুল। নৃশংস এ হত্যায় জড়িত সবার দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়েছেন স্বজন ও এলাকাবাসী।

শুক্রবার(১৮ মে) সকালে সীতাকুণ্ড উপজেলার জঙ্গল মহাদেবপুর এলাকার গহীন পাহাড়ে ত্রিপুরা পল্লীতে সুকলতি ত্রিপুরা ও প্রতিবেশী ছবি রানী ত্রিপুরাকে বাড়িতে রেখে পরিবারের সবাই কাজে যান।

দুপুরে তাদের দু’জনের লাশ ঝুলন্ত অবস্থায় দেখেন পরিবারের সদস্যরা। স্থানীয় বখাটে আবুল হোসেন ও তার সহযোগীরা তাদের শ্বাসরোধ করে হত্যা করেছে বলে অভিযোগ স্বজনদের।

পরিবারের এক সদস্য বলেন, ‘বাড়িতে লোকজন না থাকলে সে প্রায়ই আসে। তার সঙ্গে আরও দুইজন ছেলে আসে।’

চট্টগ্রামের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার শম্পা রানি সাহা জানান, এ ঘটনায় অভিযান চালিয়ে প্রধান অভিযুক্ত আবুল হোসেনকে গ্রেফতার করে পুলিশ। জিজ্ঞাসাবাদে আসামি তার সঙ্গে আরও দুই জনের জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেছে।

ঘটনার পর ত্রিপুরা পল্লীতে আতঙ্ক বিরাজ করছে। জড়িতদের গ্রেফতার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়েছেন এলাকাবাসী।

চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ড হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের সাধারণ সম্পাদক সঞ্জিত কুমার দে বলেন, ‘সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের ওপর বিভিন্ন সময়ে যে হামলা, হত্যার মতো ঘটনা ঘটছে তারই ধারাবাহিকতার অংশ এটি। আমরা এর সুষ্ঠু বিচার দাবি করছি।’

 

সূত্র: সময় টিভি

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *