সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির অনন্য উদাহরণ লংগদু উপজেলা- ব্রি. জেনারেল মাহাবুবুল আলম


img_20161228_133700-6666666666-copy

লংগদু প্রতিনিধি :
লংগদু সেনা জোন সদরে বুধবার, বেলা সাড়ে বারটায় আয়োজিত মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে খাগড়াছড়ি রিজিয়নের রিজিয়ন কমান্ডার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল স. ম. মাহাবুবুল আলম বলেছেন, লংগদু জোনের আওতাধীন এলাকা সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির এক অনন্য উদাহরণ। তিনি আরও বলেন, এখানে যেভাবে পাহাড়ী ও বাঙ্গালীরা একসাথে মিলেমিশে থাকছেন, একসাথে সম্প্রীতির সাথে বসবাস করছেন এবং একে অপরের সাথে সহনশীল আচরণ করছেন তাতে সকল পক্ষই সুখে শান্তিতে থাকতে পারছেন।এলাকার জীবনমান উন্নয়নের জন্য অবকাঠামোগত উন্নয়ন যেমন প্রয়োজন, তেমনি প্রয়োজন স্থিতিশীল শান্ত পরিবেশ।

লংগদু জোনের জোন কমান্ডার লে. কর্নেল আব্দুল আলিম চৌধুরীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এ সভায়
অতিথির মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, লংগদু উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো. তোফাজ্জল হোসেন, লংগদু উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ নিজাম উদ্দিন আহম্মেদ, জোনের সেনা কর্মকর্তা মেজর আবু সাঈদ, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মো. নাছির উদ্দিন, উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কর্মকর্তা ডা. বিশ্বজিৎ মহাজন, উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা ডা. পলাশ কান্তি চাকমাসহ জোনের বিভিন্ন সেনা কর্মকর্তা ও বিভিন্ন ইউপি চেয়ারম্যাগণ।

রিজিয়ন কমান্ডার স.ম. মাহাবুবুল আলম আরো বলেন, বর্তমান যুগটা হচ্ছে জ্ঞানের যুগ। তথ্যের ও ব্যবসার যুগ। তাই, জীবন জীবিকায় উন্নতি করতে এখানে শিল্পকারখানা গড়ে তুলতে হবে। তাতে যেটুকু ক্ষতি হবে তা মানতে হবে। উন্নত বিশ্বও এভাবেই শিল্পায়ন গড়ে তুলেছে। যারা ঢাকায় বসে টেলিভিশনে টকশো করে পার্বত্য চট্টগ্রামের উন্নয়নে বিরোধিতা করেন তারা কখনো পার্বত্য চট্টগ্রামের দুর্গম এলাকায় এসে বাস্তবতা দেখেন না। তাদের ছেলে মেয়েরাও বেশির ভাগ উন্নত রাষ্ট্রে পড়তে যায়। আমার রিজিয়নের উদ্যোগে সাজেকে একটি মাল্টি মিডিয়া স্কুল গড়ে তুলেছি। সেখানে ছাত্ররা কম্পিউটারের মাধ্যমে ইন্টারনেট সংযোগ দিয়ে তার পড়াটা আদায় করে নিতে পারছে। সরকার এই প্রজেক্টটি নিয়ে এখন ভাবছেন। কিন্তু আমরা তা পার্বত্যাঞ্চলের প্রত্যন্ত এলাকা সাজেকে দু’বছর আগে এই প্রকল্প তৈরি করেছি। বর্তমানে আমাদের এই প্রকল্পটি বেশ সাড়া জাগিয়েছে।

আমরা আমাদের দায়িত্ব পালনকালে কারো যদি কোনো ক্ষতি হয়েও থাকে সেটা ইচ্ছেকৃতভাবে নয়। আমি দুই বছর যাবৎ রিজিয়নে দায়িত্ব পালন করেছি। এখন সরকারে নির্দেশে চালে যাচ্ছি। আপনাদের যে আন্তরিকতা সহযোগিতা পেয়েছি তা কোনদিন ভুলতে পারবো না। আজকের মতো আপনাদের সাথে হয়তো এভাবে দেখা হবে না। তবে যেখানেই যাই আপনাদের কথা মনে থাকবে।

তিনি আরো বলেন, আমার দৃঢ় বিশ্বাস আপনারা যেভাবে আছেন সেভাবে থেকে এলাকার অবকাঠামো বিনির্মাণে কাজ করবেন। সম্প্রীতি বজায় রেখে শিক্ষার জন্য কাজ করবেন। তার জন্য সবাইকে উদার মনোভাব বজায় রাখতে হবে। এসময় তিনি সকলের মঙ্গল কামনা করেন।

পরে প্রধান অতিথি ব্রিগেডিয়ার জেনারেল স.ম. মাহাবুবুল আলম জোনের সংস্কারকৃত মসজিদ গেইট উদ্বোধন করেন। এরপর তিনি জোনের উদ্যোগে আয়োজিত কম্পিউটার ও সেলাইন প্রশিক্ষণ কেন্দ্রও উদ্বোধন করেন।

image_pdfimage_print

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *