সাংবাদিক শিমুল হত্যা ও খাগড়াছড়িতে সাংবাদিক নির্যাতনে আইজিপির দৃষ্টি আকর্ষণ


16508579_1238131632967290_9061430383027908032_n
নিজস্ব প্রতিবেদক, খাগড়াছড়ি:
সিরাজগঞ্জে সমকালের সাংবাদিক আব্দুল হাকিম শিমুল হত্যাকাণ্ড ও খাগড়াছড়িসহ সারাদেশে সাংবাদিক নির্যাতনে স্থানীয় পুলিশে ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন তুলে পুলিশের আইজিপি একেএম শহীদুল হকের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন, খাগড়াছড়ির সাংবাদিকরা।

রবিবার সকালে খাগড়াছড়ি শাপলা চত্বরে আয়োজিত মানববন্ধনে সাংবাদিক নেতারা এমন প্রশ্ন তুলে বলেন, সারাদেশের মতো খাগড়াছড়িতেও সাংবাদিকরা পৌরসভার মেয়র রফিকুল আলম ও তার বাহিনীর হাতে নির্যাতিত হচ্ছে। সন্ত্রাসীরা প্রকাশ্যে ঘুরে বেড়াচ্ছে। অথচ পুলিশ নীরব দর্শকের ভূমিকা পালন করছে। প্রকৃত আসামীদের আড়ালে রেখে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেছে।

সিনিয়র সাংবাদিক তরুন কুমার ভট্টাচার্যের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন, সংহতি প্রকাশ করে বক্তব্য রাখেন. খাগড়াছড়ি সরকারি কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ শিক্ষাবিদ প্রফেসর বোধিসত্ব দেওয়ান, নারী নেত্রী লালসা চাকমা, খাগড়াছড়ি প্রেসক্লাবের সভাপতি জীতেন বড়ুয়া, সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি নুরুল আজম, সাধারণ সম্পাদক কানন আচার্য্য, খাগড়াছড়ি প্রেসক্লাবের সাবেক সাধারণ সম্পাদক আবু দাউদ, সমকালের প্রতিনিধি প্রদীপ চৌধুরী ও একুশে টিভির প্রতিনিধি চিংমেপ্রু মারমা।

এছাড়া মানববন্ধনে সংহতি প্রকাশ করেন, খাগড়াছড়ি সদর উপজেলা চেয়ারম্যান চঞ্চুমনি চাকমা, চেম্বার অব কমার্সের সভাপতি সুদর্শন দত্ত, সমাজকর্মী ধীমান খীসা।

সভাপতির বক্তব্যে তরুন কুমার ভট্টাচার্য পুলিশের আইজিপি একেএম শহীদুল হকের দৃষ্টি আকর্ষন করে বলেন, সারাদেশের মত খাগড়াছড়িতেও সাংবাদিকরা নির্যাতনের শিকার হচ্ছে। অথচ স্থানীয় পুলিশ নিরব দর্শকের ভূমিকা পালন করছে।

তিনি অভিযোগ করেন, খাগড়াছড়িতে সাংবাদিকদের মানববন্ধন চলাকালে সন্ত্রাসীরা প্রকশ্যে সাংবাদিকদের হত্যার হুমকি দিয়ে শ্লোগান দিয়েছে। অথচ এ সময় পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. রইছ উদ্দিন ও সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা তারেক মোহাম্মদ আব্দুল হান্নান সন্ত্রাসীদের নিবৃত্ত না করে সাংবাদিকদের কর্মসূচী সংক্ষিপ্ত করার পরামর্শ দিয়েছে।

এ নিয়ে গণমাধ্যমে ধারাবাহিক সংবাদ-প্রতিবেদন প্রকাশিত হলেও পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের নজড়ে আসছে না। তা অত্যন্ত দুঃখজনক।

সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি নুরুল আজম সিরাজগঞ্জে সমকালের সাংবাদিক আব্দুল হাকিম শিমুল হত্যাকারী শাহজাদপুর পৌরসভার মেয়র হালিমুল হক মিরুকে দ্রুত গ্রেফতারের দাবি জানিয়ে বলেন, খাগড়াছড়ির সাংবাদিকরাও চরম নিরাপত্তাহীনতা ভোগ করছে। ৩৬ জন সাংবাদিক জীবনের নিরাপত্তা চেয়ে থানায় সাধারণ ডায়েরী করার পরও পুলিশ প্রকৃত আসামীদের আড়ালে রেখে আদালতে দায়সারা অভিযোগপত্র দাখিল করেছে।

তিনি অবিলম্বে সাংবাদিক নির্যাতনকারী খাগড়াছড়ি পৌরসভার মেয়র ও তার সন্ত্রাসী বাহিনীকে আইনের আওতায় আনার দাবি জানান।

খাগড়াছড়ি প্রেসক্লাবের সাবেক সাধারণ সম্পাদক আবু দাউদ নিজের জীবন নিয়ে শংকা প্রকাশ করে বলেন, দুর্নীতির সংবাদ প্রকাশ করায় তাকে খাগড়াছড়ির বাইরে হত্যা করার হুমকি দিচ্ছে বলেও অভিযোগ করেন।

image_pdfimage_print

One thought on “সাংবাদিক শিমুল হত্যা ও খাগড়াছড়িতে সাংবাদিক নির্যাতনে আইজিপির দৃষ্টি আকর্ষণ

  1. খাগড়াছড়ি প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক আবু দাউদের পরিবর্তে আবু তাহের মোহাম্মদ হবে । আবু দাউদ আগের মেয়াদে সাধারণ সম্পাদক ছিলেন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *