সরকার দেশে নৈরাজ্য সৃষ্টি করতে চাইছে বিএনপি সে ফাঁদে পা দিবে না- এড. খন্দকার মাহবুব হোসেন


স্টাফ রিপোর্টার:

বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল ( বিএনপি)’র ভাইস চেয়ারম্যান ও সুপ্রিমকোর্ট বার এসোসিয়েশনের সাবেক সভাপতি এডভোকেট খন্দকার মাহবুব হোসেন বলেছেন,পার্বত্য চট্টগ্রামের সকল নাগরিকের ন্যায্য অধিকার আদায়ে আইন অঙ্গনে যা যা করার দরকার , তারই সবই করব ইনশাল্লাহ। এই প্রবীণ আইনজীবী আরো বলেন, যেখানে মত প্রকাশের স্বাধীনতা থাকে না,সেখানে মানুষের অধিকার থাকে না।

বেগম খালেদা জিয়ার মামলা প্রসঙ্গে তিনি, “গতকাল সকাল ১০ টায় আমরা ( খালেদা জিয়ার আইনজীবীরা) বলেছি, হরতালের কারণে বেগম জিয়া সকালে আসতে পারবেন না। বিচারক তা নাকচ করলে আমরা বললাম, “বিশেষ কারণে বেগম জিয়া সকালে আদালতে আসতে পারছেন না। তাই তিনি দুপুর ২ টায় আদালতে আসবেন”। বিচারক খাসকামরায় গিয়ে উনার বিরুদ্ধে গ্রেফতারী পরোয়ানা জারি করলেন।

সরকারের সমালোচনা তিনি বলেন,”সরকার দেশে নৈরাজ্য সৃষ্টি করতে চাইছে।বিএনপি সে ফাঁদে পা দিবে না।বিএনপি গণতন্ত্রে বিশ্বাস করে।তাই আমরা বিশ্বাস করি নির্বাচনের মাধ্যমেই ক্ষমতার পালাবদল সম্ভব”।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে বিশিষ্ট বুদ্ধিজীবী, টকশোর আলোচিত তারকা, বীর মুক্তিযোদ্ধা ও গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের ট্রাস্টি ডা: জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলেছেন, “বাংলাদেশের বিচার ব্যবস্থা দেখে মনে হয়,অদৃশ্য শক্তি যেন বিচার ব্যবস্থা নিয়ন্ত্রণ করছে।অতীতে বহু বিচার পতিকে পালিয়ে যেতে দেখেছি”।

সুতরাং, বিচারক কে অনেক বিবেকবান ও ন্যায়পরায়ণ হতে হয়। এজন্য তো বলা হয়,”খোদার পরে ন্যায়পরায়ণ বিচারকের স্থান”।

তিনি পার্বত্য চট্টগ্রাম প্রসঙ্গে বলেন,”পার্বত্য চট্টগ্রামে ভারতের মদদে একটি অস্থিতিশীল পরিবেশ তৈরী হয়েছিল।কিন্তু সে পরিবেশকে নিয়ন্ত্রণে আনার জন্য শেখ হাসিনা সরকার যে চুক্তি করেছে তাতে বাঙ্গালীদেরকে বঞ্চিত করা হয়েছে। এজন্য চুক্তির পুনমূর্ল্যায়ন জরুরী।

পার্বত্য বাঙ্গালীদের উদারতাকে দুর্বলতা মনে করলে সরকার ভুল করবে। তাই বাঙ্গালীদের অধিকারকে সম্মান দৃষ্টিতে দেখতে হবে”।

তিনি পার্বত্য নাগরিক পরিষদের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী ১ডিসেম্বর প্রসঙ্গে বলেন, “মার্টিন লুথার কিং অশ্বেতাঙ্গদের অধিকার আদায়ের সংগ্রাম ১ ডিসেম্বর হতে শুরু করেছিলেন। তাই এই দিন টি ইতিহাসের প্রসিদ্ধ দিন”।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে কবি আসাদ বিন হাফিজ বলেন, মালয়েশিয়ায় সেকেন্ড হোম করার চেয়ে পার্বত্য চট্টগ্রামে বসতি স্থাপন অনেক দুরহ।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে বিশিষ্ট সাংবাদিক ও কলামিস্ট মেহেদী হাসান পলাশ বলেন, পার্বত্য চট্টগ্রামকে পূর্ব তিমূর ও দক্ষিণ সুদানের মত খৃস্টান রাষ্ট্র বানানোর চক্রান্ত চলছে। তাই সকলকে সচেতন হতে হবে।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে পার্বত্য বান্দরবান জেলা পরিষদের সাবেক সদস্য কাজী মুজিবুর রহমান বলেন, তিন পার্বত্য জেলা পরিষদে নির্বাচন না থাকায় স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতার অভাবে জেলা পরিষদ এখন লুটপাটের আখড়ায় পরিণত হয়েছে। তিনি অধিকার আদায়ে সকল বাঙ্গালীকে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহবান জানান।

পার্বত্য নাগরিক পরিষদের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান প্রকৌশলী আলহাজ্ব মো: আলকাছ আল মামুন ভুঁইয়ার সভাপতিত্বে ইসমাইল নবী শাওনের পরিচালনায় আরো বক্তব্য রাখেন সংগঠনের মহাসচিব এড. ইয়াকুব আলী চৌধুরী, সাংগঠনিক সম্পাদক শেখ আহমদ রাজু, আবদুল হামিদ রানা, আতিকুর রহমান প্রমুখ।

অনুষ্ঠানে পার্বত্য নাগরিক পরিষদ ও পার্বত্য বাঙ্গালী ছাত্র পরিষদের বিপুল সংখ্যক নেতাকর্মী উপস্থিত ছিলেন।অনুষ্ঠানে কেক কেটে পার্বত্য নাগরিক পরিষদের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপন করেন অতিথিবৃন্দ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *