সম্প্রীতির বন্ধন রেখে কাজ করলে পানছড়ি আরো এগিয়ে যাবে


নিজস্ব প্রতিবেদক, পানছড়ি:

আমার ইচ্ছা ছিল পানছড়িতে আসব। পানছড়ির উন্নয়ন মেলায় এসে যে উন্নয়নের ছোঁয়া দেখেছি তা আমায় মুগ্ধ করেছে। সম্প্রীতির বন্ধন রেখে কাজ করলে পানছড়ি আরো এগিয়ে যাবে। বাংলাদেশ উন্নয়নের মডেল হিসেবে এগিয়ে যাওয়ার মূলশক্তি সম্প্রীতির বন্ধন। এই মূলশক্তিকে ধরে রাখতে হলে সংঘবদ্ধভাবে চলার অভ্যাস তৈরি করতে হবে ও সামগ্রিক উন্নয়নে মনোনিবেশ করতে হবে।

পানছড়ি উপজেলায় তিন দিনব্যাপী আয়োজিত উন্নয়ন মেলার শেষ দিনে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা তুলে ধরেন খাগড়াছড়ি রিজিয়নের রিজিয়ন কমান্ডার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল আবদুল মোতালেব সাজ্জাদ মাহামুদ।

উন্নয়নের রোল মডেল শেখ হাসিনার বাংলাদেশ এ শ্লোগানেই দ্বিতীয় বারের মতো পানছড়িতে গত ১১ জানুয়ারি পানছড়ি উপজেলা পরিষদ মাঠে এক বর্ণাঢ্য আয়োজনে ৪২টি স্টল নিয়ে শুরু হয়েছিল উন্নয়ন মেলা’ ১৮। উদ্বোধনের দিন থেকেই মেলাস্থলে নেমেছিল দর্শনার্থীর উপচে পড়া ভীড়। বিভিন্ন বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী থেকে শুরু করে শিক্ষক, কলেজ পড়ুয়া ও এলাকার তরুণ-তরুণীর পদচারনায় মুখরিত ছিল মেলা প্রাঙ্গণ।

জানা যায়, এবারের উন্নয়ন মেলাকে নান্দনিক সাজে সাজানোর মূল কারিগর ছিল উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান সর্বোত্তম চাকমা ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার মুহাম্মদ আবুল হাশেম। তাই এবারের স্টলগুলোও ছিল নজর কাড়ার মতো। তাছাড়া সেরা ৩টি স্টলকে পুরস্কৃত করার ঘোষণায় সবাই ছিল স্টল সাজাতে ও সেবা দিতে ব্যস্ত। তাই উন্নয়ন মেলার সমাপনী দিনটিও জমজমাট।

সমাপনী দিন শনিবার (১৩ জানুয়ারি) বিকাল সাড়ে ৩টায় এক মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও রূপবান নাটকের অংশ বিশেষ উপভোগ করে অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি। সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পরবর্তী আলোচনায় সভাপতিত্ব করে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা। পানছড়ি বাজার উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষক সুলতান মাহামুদের সঞ্চালনায় এ সময় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, খাগড়াছড়ি জোনের জোন অধিনায়ক লে. কর্ণেল জি এম সোহাগ, পানছড়ি সাব জোনের সাবেক অধিনায়ক মেজর মো. রফিকুল ইসলাম, বর্তমান অধিনায়ক মেজর মাহি আহমেদ চৌধুরী, উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান সর্বোত্তম চাকমা, অফিসার ইনচার্জ মো. মিজানুর রহমান, পার্বত্য জেলা পরিষদ সদস্য খগেশ্বর ত্রিপুরা, সতীশ চন্দ্র চাকমা, উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি মো. বাহার মিয়া ভাইস চেয়ারম্যান লোকমান হোসেন ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান রত্না তঞ্চঙ্গ্যা।

অনুষ্ঠানে বিশেষ ক্যাটাগরি স্টলের পুরস্কার লাভ করে ৩নং সদর পানছড়ি ইউনিয়ন পরিষদ। চেয়ারম্যান মো. নাজির হোসেন এ পুরস্কার গ্রহণ করে। তাছাড়া এতে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স প্রথম, কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর দ্বিতীয় এবং শিক্ষা অফিস ও মৎস্য অফিস যৌথভাবে তৃতীয় স্থান লাভ করে। অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি বিজয়ীদের হাতে পুরষ্কার তুলে দেয়ার পর পরই উন্নয়ন মেলার সুন্দর সমাপ্তি ঘটে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *