সমুদ্র সৈকতের ঘুড়ি উৎসবের আনন্দে মেতেছে পর্যটক


01 (1) copy

কক্সবাজার প্রতিনিধি:

কক্সবাজার সমুদ্র সৈকতের লাবনী পয়েন্টে নানা ধরনের পশু-পাখি আর সামুদ্রিক প্রাণীর আদলে দেশী-বিদেশী ঘুড়ি উৎসবের আয়োজন  হয়। আর এ উৎসব পর্যটকদের কাছে ছিল বাড়তি আনন্দের। তারা ভ্রমনের সাথে ঘুড়ি উড়িয়ে মজা নিচ্ছিল। সাধারণ ঘুড়ির পরিবর্তে দেশী-বিদেশী ঘুড়িই ছিল তাদের কাছে মূল আর্কষণ।

শনিবার বিকাল সাড়ে ৪ টার লাবণী পয়েন্টে গিয়ে দেখা যায়, আকাশে উড়ছে নানা ধরনের রঙ্গিন ঘুড়ি। এসব ঘুড়ির মধ্যে ছিল ভিন্নতা। একটির সাথে নেই অন্যটির মিল। প্রত্যেকটি দেখতে খুবই সুন্দর। ঘুড়ি গুলোর মধ্যে ছিল, ঈগল, ডলপিন, অজগর, জেলিফিসসহ বিভিন্ন ধরনের সামুদ্রিক মাছ। এছাড়া ছিল দেশী-বিদেশী নানা রংয়ের ঘুড়ি। আর এসব ঘুড়ি উড়িয়েই আনন্দ পাচ্ছিল বেড়াতে আসা পর্যটকেরা। এসময় তাদের খুবই অস্থির সময় পার করতে দেখা যায়।

ঘুড়ি উড়িয়ে আনন্দ নেওয়া পর্যটকদের সাথে কথা বলে জানা যায়, নানা রংয়ের এ দেশী-বিদেশী ঘুড়ি উড়িয়ে তারা খুবই খুশি। এ উৎসবে বেশি মজা নিচ্ছিল শিশুরা।

ঢাকা থেকে বেড়াতে আসা সুমাইয়া নামে এক নারী জানান, ঘুড়ি উৎসবে অংশগ্রহণ করে তার খুবই ভাল লাগছে। একই ভাবে তার বাচ্চারাও খুব খুশি।

02 (4) copy

কক্সবাজার মোটেল প্রবালের প্রজেক্ট ম্যানেজার মাটিন টিন জানান, সব দেশী-বিদেশী ঘুড়ির মাঝে তার ভাল লাগছে বাংলাদেশী ঘুড়ি উড়িয়ে। দেশের ঘুড়ি উড়াতে পেরে তিনি খুবই গর্ববোধ করছেন।

কক্সবাজার‘সমুদ্র সৈকত ভ্রমন করুন এবং পরিষ্কার রাখুন’ এ প্রতিপাদ্যে প্রতি বছরের ন্যায় বাংলাদেশ পর্যটন কর্পোরেশনের সহযোগিতায় এ ঘুড়ি উৎসবের আয়োজন করেন ‘আমরা ঢাকাবাসি’ সংগঠন। এসব ঘুড়ির ব্যাপারে আয়োজক কর্তৃপক্ষ জানান, ঘুড়ি গুলো আনা হয়েছে চীন, ভারত, থাইল্যান্ড, মালয়েশিয়া, সিঙ্গাপুর ও নেপালসহ আরও বিভিন্ন দেশ থেকে।

এ ঘুড়ি উৎসব পর্যটকদের বিনোদনের জন্য নতুন মাত্রা যোগ করেছে বলে জানান সচেতন মহল।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *