সমাজ জীবনের বৈষম্যতা শিক্ষার মাধ্যমে দূর করতে হবে: সন্তু লারমা


news pic1 copy

রাঙামাটি প্রতিনিধি:

সমাজ জীবনে মানুষে মানুষে যে দ্বন্দ্ব, সংঘাত, জাতি, সম্প্রদায় শ্রেণি ও লিঙ্গগত বৈষম্য রয়েছে তা শিক্ষার মাধ্যমে দূর করতে হবে বলে মন্তব্য করেছেন পার্বত্য চট্টগ্রাম আঞ্চলিক পরিষদ চেয়ারম্যান জ্যোতিরিন্দ্র বোধিপ্রিয় লারমা ওরফে সন্তু লারমা।

দেশের শিক্ষা ব্যবস্থা গণমুখী করার উপর গুরুত্বারোপ করে তিনি বলেন, দেশের যুব সমাজকে অবক্ষয়ের হাত থেকে রক্ষা করতে শিক্ষার্থীদের প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষার সাথে নৈতিক শিক্ষা দানের জন্য শিক্ষকদের আরও বেশি সচেতন হতে হবে। শনিবার রাঙামাটি সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের ৫০ বছর  পূর্তিতে ২দিনের সূবর্ণ জয়ন্তী উৎসবের সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

রাঙামাটি জেলা প্রশাসক মানজারুল মান্নানের সভাপতিত্বে সমাপনী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে বক্তব্য রাখেন, রাঙ্গামাটি রিজিয়ন কমান্ডার, ব্রিগেডিয়ার জেনারেল গোলাম ফারুক, রাঙ্গামাটি সদর জোন কমান্ডার লে. কর্নেল রেদুয়ানুল ইসলাম, শিক্ষাবিদ কাওসার জাহান, ফরিদা পারভিন, বাংলাদেশ মানবাধিকার কমিশনের সাবেক সদস্য নিরুপা দেওয়ান, রাঙামাটি সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের সাবেক প্রধান শিক্ষিকা অঞ্জলিকা খীসা।

news pic 2 copy

পার্বত্য চট্টগ্রাম আঞ্চলিক পরিষদ চেয়ারম্যান সন্তু লারমা আরও বলেন, ১৯৬০ সালে কাপ্তাই বাঁধের কারণে পার্বত্য চট্টগ্রামের অর্থনৈতিক, সমাজ জীবনে, শিক্ষা অঙ্গনে বিপর্যয় বয়ে আনে। প্রয়াত সাংসদ মানবেন্দ্র নারায়ণ লারমার নেতৃত্বে আবারও নতুন করে শিক্ষা আন্দোলন শুরু করা হয়। সেই ধারবাহিকতায় আজকে পার্বত্যাঞ্চলে শিক্ষার বিস্তৃতি ঘটেছে।

তিনি আরও বলেন, দেশে যতদিন পর্যন্ত গণমুখী শাসন ব্যবস্থা প্রতিষ্ঠা পাবে না ততদিন শিক্ষাঙ্গনে যথাযথ বাস্তবতা সৃষ্টি হতে পারে না ।

আলোচনা সভা শেষে সমাজে বিভিন্ন ক্ষেত্রে অবদান রাখায় পার্বত্য চট্টগ্রাম আঞ্চলিক পরিষদ চেয়ারম্যান জ্যোতিরিন্দ্র বোধিপ্রিয় লারমা ৪৫ জন প্রাক্তন কৃতি ছাত্রীদের মাঝে সন্মাননা প্রদান করেন। বিকেলে স্মৃতিচারণ ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের মধ্যদিয়ে দুই দিনের উৎসব শনিবার রাতে শেষ হবে।

image_pdfimage_print

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *