সবুজ পাহাড়ের কোলে অত্যাধুনিক শিপ জোন


রাঙ্গামাটি প্রতিনিধি:

পর্যটন শিল্পের বিকাশে রাঙ্গামাটি জেলার কাপ্তাই উপজেলায় সবুজ পাহাড়ের কোলে নির্মিত হচ্ছে পরিবেশবান্ধব শিল্প অত্যাধুনিক শিপ জোন।

ফরাসি ও বাংলাদেশী দৈত নাগরিক ইবস মারে ও ইউএনডিপি (এনজিও) তিন পার্বত্য জেলা প্রধান প্রসেনজিৎ চাকমার যৌথ উদ্যোগে প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করা হচ্ছে। কাপ্তাইয়ের মগবান ডোগেইয়ে পাড়ায় হ্রদের পাশে প্রায় আড়াই একর পাহাড়ি জায়গার উপর ‘তাড়াতাড়ি শিপ কোম্পানী’ নামে প্রকল্পটি চালু করা হয়েছে।

চলতি বছরের ২৭ সেপ্টেম্বর ১৯ জন কর্মকর্তা-কর্মচারী নিয়ে প্রাথমিকভাবে পরিবেশবান্ধব শিপ নির্মাণ শুরু হয়। জেলার পাহাড়ের কোল ঘেঁষে কাপ্তাই হ্রদ ও কর্ণফুলী নদীর তীরে গড়ে তোলা হয়েছে একাধিক পিকনিক স্পট ও পর্যটন কেন্দ্র । প্রতি বছর নান্দনিক কাপ্তাই বিনোদন কেন্দ্রগুলোতে হাজার হাজার পর্যটকের সমাগম ঘটে। পর্যটকরা প্রাকৃতিক সৌন্দর্য উপভোগ ও হ্রদে ভ্রমণ করে অনায়াসে। নৌ-ভ্রমণের একমাত্র মাধ্যম হচ্ছে নৌকা, ইঞ্জিন চালিত বোট। এই শিপ জোন নির্মাণে দেশ-বিদেশ থেকে আসা পর্যটকরা খুব অনায়াসে ভ্রমণ করতে পারবে বলে আশা করছেন প্রকল্প পরিচালকগণ।

প্রকল্পের মার্কেটিং ম্যানেজার মোহাম্মদ সালেক সিদ্দিক বলেন, এ প্রকল্পের শুরুতে স্থানীয়ভাবে প্রচুর সাড়া পেয়েছে। কাঠের সাম্পান, নৌকা, বোট নির্মাণে বনায়ন উজাড় করা হয়। কাঠের তৈরি বোট দীর্ঘ দিন টেকসই হয় না। কিন্তু ‘তাড়াতাড়ি শিপ কোম্পানী’ নির্মিত প্লাস্টিক ও ফাইবার দিয়ে নির্মিত বোট, সাম্পান তৈরির সামগ্রী সিঙ্গাপুর, মালয়েশিয়া থেকে আমদানি করা হয়। কোম্পানির দক্ষ কারিগর দিয়ে নৌ যানবাহন ফিটিং করায় নির্মিত নৌ-যান ৪০ বছরেও কোনো ক্ষতি হবে না।

তিনি আরো বলেন, কাপ্তাই শিপ জোনে সাম্পান, কায়ার্ড, ওয়াটার বাইক, কর্ণফুলী মাল্টি, ইলেকট্রিক বাইক, স্পিড বোট, ডিটি ওয়াটার বাস, মাস ডরিস, ওয়াটার অ্যাম্বুলেন্স নির্মিত হচ্ছে বলে তিনি জানান।

প্রকল্পের সুপারভাইজার কৃতিস চন্দ্র রায় বলেন, প্রাকৃতিক সৌন্দর্যে ঘেরা কাপ্তাইয়ে পর্যটন বিকাশে ‘তাড়াতাড়ি শিপ কোম্পানি’ স্থানীয় উপজাতি ও পর্যটকদের সুবিধার কথা বিবেচনা করে টেকসই নৌ যানবাহন নির্মাণ করছে। এরই মধ্যে ওয়াগ্গা বনশ্রীসহ বিভিন্ন পিকনিক স্পট ও বিনোদন কেন্দ্রে তাদের তৈরি নৌযানবাহন সরবরাহ দেয়া হয়েছে।

তিনি আরো বলেন,পর্যটকদের ভ্রমণ আনন্দময় করতে প্রতি শুক্রবার রাঙ্গামাটি থেকে ‘তাড়াতাড়ি শিপ কোম্পানী’ একটি নৌ-বিহারের ব্যবস্থা নিয়েছে। পর্যটকেরা নৌ-বিহারের মাধ্যমে প্রকৃতিকে মন ভরে উপভোগ করতে পারছে।

কাপ্তাই শাখার ম্যানেজার দীপোজ্জ্বল দেওয়ান বলেন, পর্যটন শিল্প বিকাশ ও পরিবেশের কথা বিবেচনা করে শিল্পনগরী চট্টগ্রাম থেকে কাপ্তাই উপজেলায় সবুজ পাহাড়ের কোলে অত্যাধুনিক শিপ জোন করা হয়েছে। কাঠের তৈরি নৌ-যানবাহন নির্মাণে কাঠের প্রচুর ব্যবহার হয়। স্থানীয় চাহিদা অনুপাতে নৌ-যানবাহন তৈরি করতে গিয়ে বনায়নের অনেক ক্ষতি হচ্ছে। এতে বনায়ন ধ্বংস হচ্ছে। ‘তাড়াতাড়ি শিপ কোম্পানি’ তৈরিকৃত নৌ-যানবাহন নির্মাণে ব্যবহৃত হচ্ছে প্লাস্টিক ও ফাইবার, যা খুবই টেকসই ও মজবুত।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *