সন্ত্রাসীদের কাছে ভয়ে জিম্মি হয়ে থাকার দিন শেষ: একেএম মামুনুর রশীদ


লংগদু  প্রতিনিধি:

যারা সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডের সাথে জড়িত তাদের ব্যাপারে আইন শৃঙ্খলা বাহিনী, উপজেলা প্রশাসন বা গোয়েন্দা সংস্থাকে নির্ভয়ে প্রকাশ্যে বা গোপনে ম্যাসেজটি দিয়ে আপনারা সহযোগিতা করতে পারেন। আমরা সকল সম্প্রদায়ের শান্তির জন্য কাজ করবো। এখানে পাহাড়ি বা বাঙালি কোন ভেদাভেদ নয়। এতোদিন সন্ত্রাসীদের ভয়ে কেউ মূখ খোলেনি। চুপ করে জিম্মি হয়ে থাকার দিন শেষ এখন সময় এসেছে তাদেরকে ধরার।

বৃহষ্পতিবার(১৭মে ) লংগদু উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে উপজেলা পরিষদ সন্মেলন কক্ষে আয়োজিত আলোচনা ও মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে জেলা প্রশাসক এ কে এম মামুনুর রশীদ এসব কথা বলেন।

সভায় লংগদু উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোসাদ্দেক মেহ্দী ইমাম এর সভাতিত্বে বিষেশ অতিথির বক্তব্য রাখেন, উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো. তোফাজ্জল হোসেন।

অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মো. নাছির উদ্দিন, লংগদু থানা অফিসার ইনচার্জ রঞ্জন কুমার সামন্ত, লংগদু উপজেলা প্রেস ক্লাবের সভাপতি মো. এখলাস মিঞা খানসহ বিভিন্ন জনপ্রতিনিধিগণ বক্তব্য রাখেন।

সভায় উপজেলার বিভিন্ন বিভাগীয় কর্মকর্তা, ইউপি চেয়ারম্যান, হেডম্যান, কার্বারী, ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রধানগণ ও গণ্যমান্যব্যক্তিবর্গ এসময় উপস্থিত ছিলেন।

প্রধান অতিথি জেলা প্রশাসক এ কে এম মামুনুর রশীদ আরও বলেন, এলাকায় ব্যবসা, বানিজ্য সরকারি-বেসরকারি উন্নয়ন যা কিছুই বলেন এগুলো করার ক্ষেত্রে আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে হবে তবেই সম্ভব হবে। কিন্ত আমাদের এই জনগোষ্ঠীর মধ্যে কিছু স্বার্থন্বেষী মহল আছে। তারায় কিছু বিচ্ছিন্ন ঘটনা ঘটিয়ে থাকে। লংগদুতেও কিছু ঘটনা ঘটেছিল। গতবছর ২জুন লংগদুতে যে ঘটনা ঘটেছিলো সেটা খুবই নেক্কার জনক।

তিনি বলেন, লংগদুতে অগ্নি সংযোগের কারণে যারা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে তাদের জন্য প্রধানমন্ত্রীর তরফ থেকে দুইশত ঘর নির্মাণের জন্য ব্যবস্থা হয়েছে। অচিরেই ঠিকাদারগণ কাজ শুরু করবেন। ঘর নির্মাণে যদি কোন প্রকার বাঁধা সৃষ্টি করা হয় তাহলে সাথে সাথে তাকে আইনের আওতায় আনা হবে।

এব্যাপরে প্রধানমন্ত্রীর পক্ষ থেকেও নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। ঘর নির্মাণের সকলের সর্বাত্বক জেলা প্রশাসক সকলের সহযোগিতা কমানা করেন।

এর আগে জেলা প্রশাসক লংগদু থানা প্রশাসন পরিদর্শন করেন। সেখানে তাকে পুলিশের পক্ষ থেকে গার্ড অব অনার প্রদান করা হয়। শেষে তিনি মাইনীমুখ ইউনিয়ন পরিষদ ও মাইনীমুখ ডিজিটাল তথ্য সেবা পরিদর্শন করেন।

 

নিউজটি লংগদু বিভাগে প্রকাশ করা হয়েছে

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *