সনাতন ধর্ম  ত্যাগ করে ইসলাম ধর্ম গ্রহন করলেন সিন্দুকছড়ির অর্জুন দাস


গুইমারা প্রতিনিধি:

খাগড়াছড়ির গুইমারায় সনাতন বৌদ্ধ ধর্ম ত্যাগ করে ইসলাম ধর্ম গ্রহন করলেন অর্জুন দাস। সোমবার (৩১ জুলাই) খাগড়াছড়ি বিজ্ঞ নোটারী পাবলিকেরর মাধ্যমে হলফনামা ( ধর্মান্তর সম্পর্কিত ঘোষনা) সম্পাদন করেন।

নিজের ইচ্ছায় গুইমারা উপজেলার মৃত কৃষ্ণ কুমার দাসের ছেলে অর্জুন দাস সনাতন  ধর্ম ছেড়ে মুসলিম ধর্ম গ্রহন করলেন।

জানা যায়, সে গুইমারা উপজেলার সিন্দুকছড়ি ইউনি্য়নের ২২৬ নং মৌজার বাসিন্দা। তার  পিতা মৃত কৃষ্ণ কুমার দাস, মাতা মৃত বেরহানী দাস। সিন্দুকছড়ি বাজার এলাকায় তার বাড়ী। ইসলাম ধর্ম গ্রহনকালে অর্জুন দাসের বয়স ৭১ বছর।

স্থানীয়দের মাধ্যমে জানা যায়, অর্জুন দাস দীর্ঘদিন ধরে ইসলাম ধর্ম গ্রহন করার জন্য আমাদের দ্বারপ্রান্ত হয়েছে। অর্থঅভাবের জন্য পারে নি। গতকাল সকালে স্থানীয়রা জালিয়াপাড়ার বিশিষ্ট সমাজ সেবক ডাক্তার নুরুন্নবী সাহেবর নিকট নিয়ে যায়। ডাক্তার সাহেব অর্জুন দাসের ইচ্চার কথা শুনে নিজ খরচে অর্জুন দাসকে খাগড়াছড়ি কোর্টে পাঠায়।

এ বিষয়ে অর্জুন দাস বলেন, আমি সম্পূর্ন প্রাপ্ত বয়স্ক একজন মানুষ। আমার ভালো মন্দ বিচার করার মত জ্ঞান আছে। দীর্ঘদিন যাবৎ আমি মানুষের দ্বারে দ্বারে ঘুরেছি অর্থের জন্য পারি নি। অবশেষে ডাক্তার নুরুন্নবী ভাই আমাকে সহযোগিতা করেছে । এজন্য আল্লাহ তার মঙ্গল করবে।মুসলিম অধ্যুষিত এলাকায় আমি বড় হয়েছি। সনাতন ধর্ম আর ইসলাম ধর্মের ব্যাবধান বুঝতে পেরেছি। আমি আমার স্বইচ্ছাতেই জালিয়াপাড়া মসজিদের ঈমাম পবিত্র কালেমা লা ইলাহা ইল্লালাহু মোহাম্মাদুর রাসুলাল্লাহ (সঃ) পাঠ করে ইসলাম ধর্ম গ্রহন করেছি। আমার বাকী জাবন ইসলাম ধর্মে কাটাবো। আমার নাম অর্জুন দাস বাদ দিয়ে এখন রেখেছি মোহাম্মদ আলী।

 

নিউজটি গুইমারা বিভাগে প্রকাশ করা হয়েছে

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *