বাইশারী বাজার সড়ক বর্ষা শুরুর আগেই করুন দশা


বাইশারী প্রতিনিধি:

পার্বত্য জেলা বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার জনবহুল এলাকা বাইশারী বাজারের প্রবেশ পথের মাত্র দুইশত গজ জায়গা অবহেলিত অবস্থায় পড়ে রয়েছে দীর্ঘদিন যাবত। বর্ষা মৌসুম শুরুর আগেই করুন দশা এ সড়কের।

সড়কের উভয় পার্শ্বে কার্পেটিং দ্বারা উন্নয়ন হলেও মাত্র দুইশত গজ রাস্তার চিত্র ভিন্ন রুপ। যানবাহন ও জনসাধারণ চলাচলে বর্তমানে কঠিন হয়ে পড়েছে। যার ফলে পুরো ১৩ কি.মি. সড়কটি অকেজো হয়ে পড়েছে। বর্তমানে কাদা পানি মাড়িয়ে কোন রকম যানবাহন ও জনসাধারণ চলাচল করছে। পুরোদমে বর্ষা মৌসুম শুরু হলে যোগাযোগ ব্যবস্থা বন্ধ হয়ে যাবে বলে জানান স্থানীয় ব্যবসায়ীরা।

এলাকার হাজারও মানুষের প্রশ্ন উভয় পার্শ্বে সড়কের মেরামতের কাজ সমাপ্ত হলে ও এই জায়গাটুকু মালিক বিহীন অবস্থায় পড়ে রয়েছে।

এদিকে বাইশারী বাজারের ত্রিমোহনি চত্বর থেকে উত্তরে ইউনিয়ন পরিষদ পর্যন্ত পাকা সড়কের কাজটি করেছেন সড়ক ও জনপথ বিভাগ বান্দরবান। অন্যদিকে ত্রিমোহনী চত্বর থেকে দুইশত গজ বাদ দিয়ে সড়কের কার্পেটিং দ্বারা উন্নয়নের কাজটি করেছেন এলজিইডি নাইক্ষ্যংছড়ি। উভয় দপ্তর দুইশত গজ রাস্তার জায়গা বাদ দিয়ে কাজ করায় এলাকাবাসীর মনে প্রশ্ন হল এইটা মনে হয় নোম্যান্ডস ল্যান্ডস। নাহ হয় মালিক বিহীন বেওয়ারিশ এলাকা। তবে এলজিইডির উপসহকারী প্রকৌশলী বলছেন ভিন্ন কথা। তিনি বলেন যতটুকু এবং যেই জায়গা থেকে টেন্ডার হয়েছে এই কাজ সমাপ্ত হয়েছে। বাকী কাজের জন্য দরপত্র আহ্বান করা হবে।

বর্তমানে ওই স্থান দিয়ে যান চলাচল ও মানুষ চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়েছে। দেখলে মনে হবে এই সড়কটির কোন মালিক নেই। ওই স্থান করুন দশায় পরিনত হওয়ার কারণে দ্রব্যমুল্য আনা নেওয়া এবং বাজারের মালামালা কাধে বহন করে নিতে হচ্ছে। যার ফলে কৃষক ও ব্যবসায়ীদের দ্বিগুন খরচ গুনতে হচ্ছে।

বাইশারী বাজারটি বাইশারীসহ তিন ইউনিয়নের লক্ষাধিক মানুষের প্রান কেন্দ্র। তাই দ্রুত ব্যবস্থা নেওয়ার দাবি তুলছেন হাজারও ব্যবসায়ী মহল।

এ বিষয়ে বাইশারী ইউপি চেয়ারমান মো. আলম কোম্পানি বলেন, বাইশারী বাজারের প্রবেশ পথের রাস্তাটির অবস্থা খুবই খারাপ হয়েছে। দ্রুত উন্নয়নের জন্য তিনি বিষয়টি নিয়ে ইতিমধ্যে উপজেলা প্রকৌশলীর সাথে কথা বলেছেন। অচিরেই ব্যবস্থা নিবেন বলে তাকে আশ্বস্থ করেছেন।

বিষয়টি নিয়ে উপজেলা ইঞ্জিনিয়ার তোফাজ্জল হোসেন ভুইয়া জানান, টেন্ডারের মাধ্যমে হোক আর না হলে বিশেষ বরাদ্দের মাধ্যমে হোক দ্রুত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

এলাকার সচেতন মহল ও ব্যবসায়ীরা রাস্তাটি দ্রুত সংস্কারের দাবি জানান।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *