শান্তিচুক্তির ১৯ বছর পূর্তিতে মহালছড়িতে বিজয় র‌্যালি, সমাবেশ


sam_1508-copy

মহালছড়ি প্রতিনিধি:

পার্বত্য শান্তিচুক্তির ১৯ বছর পূর্তি উপলক্ষে খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলার মহালছড়ি উপজেলায় বিজয় র‌্যালি, সমাবেশ ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

দিবসটি যথাযথভাবে পালনে এদিন মহালছড়ি এলাকাবাসীর উদ্যোগও আয়োজনে এবং মহালছড়ি জোন কর্তৃপক্ষের সার্বিক সহযোগীতায় স্মরনাতীতকালের এক সুশৃঙ্খল বর্ণাঢ্য বিজয় র‌্যালি অনুষ্ঠিত হয়।

মহালছড়ি জোন কর্তৃপক্ষের পক্ষে জোন অধিনায়ক লে: কর্ণেল মোহাম্মদ হুমায়ুন কবির এসপিপি-পিএসসি, লে: আরিফুর রহমান, মেজর সালেদিন সফি, সেকেন্ড. লে. তাম্মাম, ও ক্যা: মোজাম্মেল হক। মহালছড়ি উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ ইলিয়াস মিয়া এর নেতৃত্বে বেশ কিছু সরকারী কর্মকর্তা কর্মচারী, মহালছড়ি সদর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক রতন কুমার শীলের সম্মিলিত যৌথ নেতৃত্বে অনুষ্ঠি উক্ত বিজয় র‌্যালি মহালছড়ি টাউন হলের ময়দান হতে শুরু হয়ে পুরো উপজেলা সদর এলাকা প্রদক্ষিণ করে এক সংক্ষিপ্ত সমাবেশ ও আলোচনা সভার মাধ্যমে সমাপ্ত হয়।

‘শান্তি চুক্তির ১৯ বছর আমাদের অর্জন ও প্রত্যাশার বিজয় র‌্যালি’ শিরোনাম সম্বলিত ব্যানার ও ‘পাহাড়ী -বাঙ্গালী ভাই ভাই শান্তিচুক্তির সুফল পা’ প্লেকার্ড, ফেস্টুনে সুসজ্জিত উক্ত বিজয় র‌্যালিতে এলাকার কৃষক, শ্রমিক, ব্যবসায়ী, চাকুরীজীবী, ছাত্র, নারী, পুরুষ, আবাল-বৃদ্ধ-বনিতাসহ পাহাড়ী বাঙ্গালী মিলিত সর্বস্তরের কয়েক হাজার মানুষের সমাগম হয়।

অপরদিকে পার্বত্য চট্টগ্রাম জন সংহতি সমিতি মহালছড়ি থানা শাখার আয়োজনে সংগঠনের কার্যালয়ের সামনে এক সমাবেশ ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

সংগঠনের থানা কমিটির সভাপতি প্রিয় কুমার চাকমার সভাপতিত্বে এবং তথ্য ও প্রচার সম্পাদক নয়নজ্যোতি তালুকদারের উপস্থাপনায় উক্ত সমাবেশের আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন সাধারণ সম্পাদক, সন্তোষময় চাকমা, সহসভাপতি বিমল কান্তি চাকমা, যুব ও ছাত্র নেতা অমিয় কান্তি চাকমা, পিসিপি সভাপতি জেপলিন চাকমা, বিশেষ অতিথি থুইহলা অং মারমা, কেন্দ্রীয় নেতা ও প্রধান অতিথি প্রজিত চাকমা, জেলা শাখার ছাত্র ও যুবনেতা নিলরঞ্জন চাকমা, সমর বিকাশ চাকমা, মংহলাপ্রু মার্মাসহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দ।

সভায় বক্তারা ভূমি কমিশন পার্বত্য চট্টগ্রামের প্রচলিত আইন, রীতি ও পদ্ধতি অনুযায়ী ভূমি বিরোধ নিষ্পত্তি ও পার্বত্য চুক্তি (পার্বত্য শান্তিচুক্তি) পূর্ণ বাস্তবায়নের দাবী জানান।

image_pdfimage_print

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *