শক্তিমান চাকমা ও তপন জ্যোতি চাকমা হত্যা মামলার আসামি পুলক সহযোগীসহ আটক: অস্ত্র, গুলি ও ইয়াবা উদ্ধার


 

নিজস্ব প্রতিবেদক, খাগড়াছড়ি:

রাঙামাটির নানিয়াচর উপজেলা চেয়ারম্যান এডভোকেট শক্তিমান চাকমা ও ইউপিডিএফ গণতান্ত্রিকের কেন্দ্রীয় আহ্বায়ক তপন জ্যোতি চাকমাসহ ৬ হত্যাকাণ্ডের আসামি ইউপিডিএফ(প্রসীত) গ্রুপের শীর্ষ সন্ত্রাসী পুলক চাকমা ও অস্ত্র মামলার পলাতক আসামি অমর বিকাশ চাকমাকে আটক করেছে যৌথ বাহিনী।

বুধবার(৩০ মে) বিকাল ৪টার দিকে খাগড়াছড়ি জেলার লক্ষ্মীছড়ি উপজেলার যতীন্দ্র কার্বারী পাড়া থেকে তাদের আটক করা হয়। তাদের কাছ থেকে অস্ত্র, গুলি ও ইয়াবা উদ্ধার হয়েছে বলে পুলিশ জানিয়েছে।

পুলক চাকমা খাগড়াছড়ি জেলা সদরের মহাজন পাড়ার বাসিন্দা চম্প লাল চাকমার ছেলে এবং অমর বিকাশ চাকমা রাঙামাটির কাইখালীর ধারাশ চাকমার ছেলে।

নিরাপত্তা বাহিনীর সূত্র জানায়, আটক পুলক চাকমা নিহত উপজেলা চেয়ারম্যান শক্তিমান চাকমা হত্যা মামলার ২৫ এবং তপন জ্যোতি চাকমা হত্যা মামলার ৭১ নম্বর এজাহারভূক্ত আসামি।

অপর দিকে অমর বিকাশ চাকমা খাগড়াছড়ি জেলার লক্ষ্মীছড়িতে গত বছরের ১১ নভেম্বর দায়েরকৃত অস্ত্র মামলায় পলাতক আসামি।

লক্ষ্মীছড়ি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আব্দুল জব্বার জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে বিকাল ৪টার দিকে যৌথ বাহিনী লক্ষ্মীছড়ি যতীন্দ্র লাল কার্বারী পাড়ায় ইউপিডিএফ(প্রসীত) গ্রুপের আস্তানায় অভিযান চালায়। নিরাপত্তা বাহিনীর উপস্থিতি টের পেয়ে সন্ত্রাসীদের অনেকে পালিয়ে যেতে সক্ষম হলেও পুলক চাকমাকে একটি এলজি ও তিন রাউন্ড গুলি ও অমর বিকাশ চাকমাকে ইয়াবা এবং চাঁদা আদায়ের রশিদ ও ৯ হাজার টাকাসহ আটক করতে সক্ষম হয়।

এদিকে ইউনাইটেড পিপলস ডেমোক্রেটিক ফ্রন্ট(ইউপিডিএফ)-এর খাগড়াছড়ি জেলা ইউনিটের প্রধান সংগঠক সচিব চাকমা বুধবার সন্ধ্যায় সংবাদ মাধ্যমে দেওয়া এক বিবৃতিতে লক্ষ্মীছড়ি উপজেলার যতীন্দ্র কার্বারী পাড়া এলাকা থেকে ইউপিডিএফ’র লক্ষ্মীছড়ি উপজেলা ইউনিটের সংগঠক পুলক চাকমা ও অমর চাকমাকে  গ্রেফতারের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন।

বিবৃতিতে তিনি বলেন, সরকার-সেনাবাহিনী পরিকল্পিত ভাবে ইউপিডিএফ নেতা-কর্মী-সমর্থকদের হত্যা-গুম-অপহরণ করছে, অপরদিকে অন্যায়ভাবে গ্রেফতার-নির্যাতনসহ মিথ্যা মামলা দিয়ে নানা হয়রানি করছে।

বিবৃতিতে তিনি দৃঢ় প্রত্যয় ব্যক্ত করে বলেন, শত দমন-পীড়ন চালিয়েও ইউপিডিএফকে দমিয়ে রাখা যায়নি, ভবিষ্যতেও যাবে না। সকল ধরনের নিপীড়ন-নির্যাতন ও বাধা-বিপত্তি মোকাবেলা করে মুক্তিকামী জনগণকে সাথে নিয়ে ইউপিডিএফ তার ন্যায়সঙ্গত আন্দোলন চালিয়ে যাবে।

ইউপিডিএফ নেতা অবিলম্বে অন্যায় দমন-পীড়ন ও ধরপাকড় বন্ধ করে পার্বত্য চট্টগ্রামে সুষ্ঠু গণতান্ত্রিক পরিবেশ নিশ্চিত করার দাবিসহ গ্রেফতারকৃতদের নিঃশর্ত মুক্তির দাবি জানান।

প্রসঙ্গত, আগের দিন  সন্ত্রাসীদের গুলিতে নিহত রাঙামাটির নানিয়াচর উপজেলা চেয়ারম্যান ও খাগড়াছড়ি জেলা আইনজীবী সমিতির সদস্য এডভোকেট শক্তিমান চাকমার শেষকৃত্য অনুষ্ঠানে যাওয়ার পথে ৪ মে  দুপুরে খাগড়াছড়ি-রাঙামাটি সড়কের বেতছড়িতে সন্ত্রাসীদের হামলায় ইউপিডিএফ গণতান্ত্রিক-এর কেন্দ্রীয় আহ্বায়ক তপন জ্যোতি চাকমাসহ পাঁচজন নিহত হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *