লাখো পুণ্যার্থীর উৎসর্গের মধ্য দিয়ে শেষ হলো কঠিন চীবর দান


রাঙ্গামাটি প্রতিনিধি:

লাখো পুণ্যার্থীর উৎসর্গের মধ্য দিয়ে শেষ হলো পার্বত্য চট্টগ্রামের বৌদ্ধ ধর্মাবলম্বীদের রাঙ্গামাটি রাজবন বিহারে দুই দিনব্যাপী সর্ববৃহৎ ধর্মীয় উৎসব ৪৪তম কঠিন চীবর দান। চীর উৎসর্গের সময় ভক্তদের সাধু সাধু সাধু কন্ঠধ্বনিতে বিহার প্রাঙ্গণ যেন মুখরিত হয়ে উঠছে।

শুক্রবার (৩ নভেম্বর) দুপুরে রাঙ্গামাটির রাজবন বিহার প্রাঙ্গনে বৌদ্ধ সমাবেশের মধ্য দিয়ে চাকমা সার্কেল চীফ রাজা দেবাশীষ রায় পার্বত্য ধর্মীয় গুরু বনভন্তের শীর্ষ মণ্ডলীর কাছে এ চীবর উৎসর্গ করেন।

এসময় অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন, রাঙ্গামাটি জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বৃষ কেতু চাকমা, জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ মানজারুল মান্নান, রাঙ্গামাটি সদর জোন কমান্ডার লে. কর্ণেল রিদওয়ান, পুলিশ সুপার সাঈদ তারিকুল হাসান,  জেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান নিখিল কুমার চাকমা, স্থানীয় সরকার পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান ও রাজবন বিহারের সিনিয়র সভাপতি গৌতম দেওয়ান, চাকমা রানী ইয়েন ইয়েন প্রমুখ।

সমবেত পুন্যার্থীদের উদ্দেশ্যে ধর্মীয় দেশনা দেন বৌদ্ধধর্মীয় অন্যতম গুরু মহামতি বনভান্তের প্রধান শিষ্য শ্রী প্রজ্ঞালংকর মহাস্থবির। পরে পর্যায়ক্রমে অনুষ্ঠিত হয় সংঘদান, অষ্ট পরিষ্কার দান, বুদ্ধমুর্তি দান, ২৪ ঘন্টার মধ্যে তৈরি পূণ্যার্থীদের কঠিন চীবর দান উৎসর্গ।

শুক্রবার দুপুর ১২টা থেকে রাজবন বিহারের মাঠের বিশাল এলাকাজুড়ে শুরু হওয়া বর্ণাঢ্য বস্ত্র ও কল্পতরু শোভাযাত্রা মুহুর্মুহু আনন্দ ধ্বনি এবং উৎসবের জোয়ার মুখরিত করে। ভোর থেকেই একেএকে ভিড় জমাতে থাকে পূণ্যার্থীরা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *