লংগদুতে আটক জামাতের সাত নারী কর্মীর জিজ্ঞাসাবাদ চলছে


নিজস্ব প্রতিনিধি, রাঙামাটি:

রাঙামাটির লংগদু উপজেলায় আটক জামাতের সাত নারী কর্মীকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে এবং তবে এখনো তাদের কাছ থেকে কোন তথ্য পাওয়া যায়নি বলে পুলিশ জানায়।

সোমবার (২৬মার্চ) সকালে উপজেলার মুসলিম ব্লক এলাকা থেকে তাদের আটক করা হয়।

আটকৃতরা হলেন- কুমিল্লা জেলার ব্রাক্ষনপাড়ার শাহানাজ (২৭), রাঙামাটি শহরের আমানত বাগ এলাকার মাহমুদা (১৯), চট্টগ্রাম জেলার সাতকানিয়ার সদিপাড়ার মিফতাহুল জান্নাত (২১), লংগদু উপজেলার মুসলিম ব্লগ এলাকার ফাতেমা আক্তার মুন্নী (৩৮), ঢাকার খামার বাড়ি ফার্মগেট এলাকার নাছিমা আক্তার (৩০), শরীয়তপুর জেলার নড়িয়া থানার বৈশাখি পাড়ার তাহসিনা ফাতেমা (২৪) এবং চট্টগ্রাম জেলার চান্দগাঁও থানার ঘাসিয়া পাড়ার সাদিকা (২৫)।

তারা সবাই ইসলামিক ছাত্রী সংস্থা ও জামায়াতের সক্রিয় সদস্য বলে জানায় পুলিশ। এসময় তাদের কাছ থেকে বেশকিছু সাংগঠনিক বই ও লিফলেট উদ্ধার করা হয়।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার মুসলিম ব্লক এলাকায় রাবেতা মডেল হাই স্কুলের শিক্ষক ওসমান মাস্টারের বাড়িতে ইসলামি ছাত্রী সংস্থা ও জামায়াতের সাত সক্রিয় নারী সদস্যরা একই বিদ্যালয়ের শিক্ষিকা ফাতেমার নেতৃত্বে গোপনে সাংগঠনিক বৈঠক শুরু করে। খবর পেয়ে পুলিশ ওই বাড়িতে অভিযান চালায়। এসময় পুলিশ অভিযানে ওসমান মাষ্টারের বাড়িতে তল্লাশি চালিয়ে বেশকিছু জামাতের সাংগঠনিক বই ও লিফলেটসহ ৭নারীকে আটক করে। এসময় শিক্ষক ওসমান বাড়িতে ছিল না। তবে তাকে আটকের চেষ্টা চলছে বলে পুলিশ জানায়।

এ ব্যাপারে রাঙামাটির লংগদু থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রঞ্জন কুমার সামন্ত বলছে, ‘যুদ্ধপরাধী সাজাপ্রাপ্ত মীর কাশেম আলীর প্রতিষ্ঠিত স্কুলের শিক্ষক ও জামাত নেতা ওসমান গনি এবং তার স্ত্রীর মোছা. ফাতেমা আক্তার মুন্নির বাসায় মহান স্বাধীনতা দিবসকে ঘিরে নাশকতা গোপন বৈঠক চলছে এমন তথ্যর ভিত্তিতে পুলিশ অভিযান চালিয়ে তাদের আটক করে। তাদের আরো জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে, জিজ্ঞাসাবাদ শেষে মামলার প্রক্রিয়া শুরু করা হবে বলে পুলিশের এ কর্মকতা জানান।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *