লংগদুতে অগ্নিসংযোগে ক্ষতিগ্রস্তদের মানববন্ধন


নিজস্ব প্রতিনিধি, রাঙামাটি:

রাঙামাটির লংগদু উপজেলায় ২ জুন, ২০১৭ তিনটি গ্রামের পাহাড়ীদের বাড়ী-ঘরে অগ্নিসংযোগ ঘটনার সাথে জড়িত অপরাধীদের গ্রেফতারপূর্বক দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি প্রদান ও ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারদের যথাযথ ক্ষতিপূরণের দাবীতে মানববন্ধন ও স্মারকলিপি প্রদান করা হয়।

শনিবার (২ জুন) সকালে উপজেলার মানিকজোড়ছড়া, তিনটিলা ও উপজেলা সদর এলাকায় ক্ষতিগ্রস্ত পাহাড়ীদের উদ্যোগে উপজেলা পরিষদ সড়কে এ মানববন্ধন করা হয়।

ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারদের মধ্যে ১নং আটারকছড়া ইউপি চেয়ারম্যান মঙ্গল কান্তি চাকমার সভাপতিত্বে মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন, ৭নং লংগদু ইউপি চেয়ারম্যান কুলিন মিত্র চাকমা (আদু), ২৪নং মাইনীমুখ মৌজার হেডম্যান মানিক কুমার চাকমা।

বক্তারা বলেন, একজন যুবলীগ নেতা হত্যাকাণ্ড নিয়ে লংগদুতে তিনটি গ্রামে পাহাড়ীদের বাড়ী-ঘর আগুন দিয়ে পুড়িয়ে দেয়ার ঘটনা অত্যন্ত মর্মান্তিক ও দুঃখজনক ঘটনা। বক্তারা এই ঘটানার সাথে জড়িত ব্যক্তিদের গ্রেফতার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবী করেন।

বক্তারা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন, প্রধানমন্ত্রীর আন্তরিকতায় প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিল হতে অগ্নিসংযোগের ঘটনায় ক্ষতিগ্রস্ত ২১৩ পরিবারের জন্য ১৭৬টি বাড়ী নির্মাণ করে দিচ্ছেন।

মানববন্ধন শেষে ক্ষতিগ্রস্তদের পক্ষ থেকে লংগদু উপজেলা নির্বাহী অফিসারের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী বরাবরে একটি স্মারকলিপি প্রদান করেন ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের সদস্যরা।

গত ২০১৭ সালে ২ জুন মাসে লংগদুর যুবলীগ নেতা ও মোটরসাইকেল চালক নুরুল ইসলাম নয়ন হত্যাকাণ্ডের ঘটনাকে কেন্দ্র করে বিক্ষুব্ধ লোকজন লংগদু সদর, তিনটিলা ও মানিকজোরছড়া গ্রামে পাহাড়ীদের বাড়ী-ঘরে অগ্নি সংযোগ করলে ২১৩টি পরিবারের ঘর-বাড়ী ও দোকানপাট পুড়ে যায়।

অবশেষে ঘটনার এক বছরের মাথায় ক্ষতিগ্রস্ত এলাকায় বসত ঘর নির্মাণ আনুষ্ঠানিকভাবে শুরু হয়েছে।

নিউজটি লংগদু বিভাগে প্রকাশ করা হয়েছে

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *