রোহিঙ্গা ক্যাম্পে ১২ এনজিও’র কার্যক্রম বন্ধের নির্দেশ


কক্সবাজার প্রতিনিধি:

উখিয়ায় ১২টি এনজিও’র কার্যক্রম বন্ধের নির্দেশ দিয়েছে সরকার। মিয়ানমার সরকারের দমন-নিপীড়নের কারণে ২৫ আগস্ট পরবর্তী লাখ লাখ রোহিঙ্গা বাংলাদেশের উখিয়া-টেকনাফে ১২টি অস্থায়ী ক্যাম্পে আশ্রয় নেয়।

বাংলাদেশ সরকারের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এসব রোহিঙ্গাদের আশ্রয় ও ভরণ পোষনের ব্যবস্থা করে যাচ্ছে। আশ্রয় নেওয়া এসব রোহিঙ্গা শিবিরে সরকারের পাশাপাশি শতাধিক এনজিও কার্যক্রম পরিচালনা করছে। এদিকে ক্যাম্পে কর্মরত এরকম ১২টি এনজিও’র সংশ্লিষ্ট গোয়েন্দা শাখা ও সংস্থা গুলোর রেজিস্ট্রেশন গ্রহণ সংক্রান্ত কোন তথ্য উপাত্ত পায়নি।

এ কারণে ১২টি এনজিও’র কার্যক্রম বন্ধের নির্দেশ দেয় প্রশাসন। এদিকে এখনো পর্যন্ত রোহিঙ্গা অনুপ্রবেশের নেপথ্যে কতিপয় নিবন্ধনহীন এনজিও উৎসাহ জোগাচ্ছে বলে অভিযোগ উঠেছে। যে কারণে সরকার তথ্য উপাত্ত সংগ্রহ পূর্বক ওইসব এনজিও গুলোকে দায়ী করে রোহিঙ্গা ক্যাম্পে তাদের সমস্ত কার্যক্রম বন্ধ করার নির্দেশ দেয় বলে এমনটি মনে করছেন সচেতন মহল।

বুধবার (২৭ ডিসেম্বর)এ সংক্রান্ত একটি নির্দেশনা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয়ে এসে পৌঁছে। ওই নির্দেশনায় উল্লেখ করা হয়েছে সাফ্জ, কালব, ওফকা, জাগরণ, এমপিডিআর, মানবাধিকার, শেড ওয়াশ, টায় বিডি, এসআরপিবি, গ্রামীণ ব্যাংক, লাচুম ও শিলাফ। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রণালয়ের সুরক্ষা সেবা বিভাগের সিনিয়র সহকারী সচিব সনজীদা শারমিন স্বাক্ষরিত এ আদেশ ২৯ নভেম্বর থেকে কার্যকর হয়।

সত্যতা নিশ্চিত করে উখিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. নিকারুজ্জামান চৌধুরী রবিন জানান, রোহিঙ্গা অনুপ্রবেশসহ বিভিন্ন অনৈতিক কারণে রোহিঙ্গা ক্যাম্প ভিত্তিক ১২টি এনজিও’র কার্যক্রম বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *