রুমা উপজেলা নির্বাহী অফিসারের নির্দেশে বাল্য বিবাহ বন্ধ


 

নিজস্ব প্রতিবেদক, বান্দরবান:

বান্দরবানের রুমা উপজেলায় ২নং ইউনিয়নে মুসলিম পাড়ায় বাসিন্দা আব্দুল সোবহান তার ১৩ বছর বয়সী ৭ম শ্রেণি পড়ুয়া কন্যাকে কক্সবাজার জেলার চকরিয়ায় বড়ইতলি ইউনিয়নের মুসন্নিয়া গ্রামের বাসিন্দা মোহাম্মদ জাফর আহমেদের ছেলে সোহেল উদ্দিন (২৩) এর সাথে বিয়ের প্রস্তুতি চলছিল বৃহস্পতিবার।

রাত ৮টার দিকে নির্বাহী অফিসারের নির্দেশে ২নং রুমা সদর ইউপি চেয়ারম্যান শৈমং মারমা ও থানার এস আই আবুল হোসেন নেতৃত্বে বিয়ের আসরে উপস্থিত হয়ে বাল্য বিবাহটি বন্ধ করা হয়।

ইউপি চেয়ারম্যান শৈমং মারমা জানান, উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মাদ শরিফুল হক এক স্কুল ছাত্রীর বাল্য বিবাহ অনুষ্ঠান আয়োজনের কথা জানিয়ে আমাকে মুসলিম পাড়া ডেকে পাঠান। আমি পুলিশ ফোর্স নিয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছে মেয়েটি নাবালিকা নিশ্চিত হয়ে বিবাহের আয়োন বন্ধ করা হয়। উপজেলা নির্বাহী অফিসারের নির্দেশনা মোতাবেক অভিবাবকদের মুচলেকা নিয়ে বাল্য বিবাহ বন্ধ করা হয়। তিনি আরও জানান, অভিভাবক জোর করে তার মেয়েকে বিয়ে দিতে চাচ্ছেন, এমন কথা ওই স্কুল ছাত্রীরা তাকে বলেছেন।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার মুহাম্মদ শরিফুল হক জানান সোর্সের মাধ্যমে বাল্য বিবাহের আয়োজনের কথা জানার পর সদর ইউপি চেয়ারম্যান জনাব শৈমং মারমা, থানার অফিসার ইনচার্জ ও মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তাকে যথাযথ ব্যবস্থা নিতে বলা হয়। দরিদ্র-গরিব অভিভাবকের উভয় পক্ষ থেকে শাবালক-বালিকা হবার আগে কোনো বিয়ে দেবেন না এমন মুচলেকা নিয়ে প্রথমবার হিসেবে বাল্যবিবাহ বন্ধ করতে পরামর্শ দেয়া হয়।

অনেকের মুখে আর চায়ের কাপে আড্ডায় বিষয়টি উঠে আসে এবং উপজেলা নির্বাহী অফিসার মুহাম্মদ শরিফুল হককে প্রসংশা করেন এলাকাবাসী।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *