রুমায় নিরাপত্তাবাহিনীর সঙ্গে সন্ত্রাসীদের গোলাগুলি, সরঞ্জাম উদ্ধার


পার্বত্যনিউজ রিপোর্ট ॥
বান্দরবানের রুমায় নিরাপত্তাবাহিনীর সঙ্গে অস্ত্রধারী সন্ত্রাসীদের গোলাগুলির ঘটনা ঘটেছে। এসময় ঘটনাস্থল থেকে সামরিক পোশাক, ভোটার আইডি কার্ডসহ সরঞ্জাম উদ্ধার করেছে নিরাপত্তাবাহিনী। আজ শুক্রবার দুপুরে এ ঘটনা ঘটে।

ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে অভিযোগ পেয়ে পাইন্দু উজানিপাড়ায় ঘটনাস্থলে গেলে সন্ত্রাসীরা নিরাপত্তাবাহিনীর পেট্টোল টিমের উপর গুলি ছুঁড়ে। নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যরাও আত্মরক্ষায় গুলি বর্ষণ করেছে। সন্ত্রাসীরা পালিয়ে যাওয়ার পর ঘটনাস্থল থেকে সন্ত্রাসীদের ব্যবহৃত পোশাক, ভোটার আইডি কার্ডসহ সরঞ্জাম করা হয়েছে বলে জানা গে্ছে। তবে কোনো হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি।

নিরাপত্তা বাহিনী ও স্থানীয়রা জানায়, জেলার রুমা উপজেলার পাইন্দু ইউনিয়নের মাঝেরপাড়া এলাকায় অস্ত্রধারী সন্ত্রাসীরা চাঁদার জন্য কাঠ বোঝাই ২টি ট্রাক আটকে রাখে। খবর পেয়ে রুমা জোনের নিরাপত্তাবাহিনীর একটি দল ঘটনাস্থলে অভিযান চালায়। এসময় অস্ত্রধারী সন্ত্রাসীরা নিরাপত্তাবাহিনীকে লক্ষ্য করে গুলি ছুঁড়ে। নিরাপত্তাবাহিনী প্রায় দেড়শ’ রাউন্ড গুলিবর্ষণ করে।

নিরাপত্তাবাহিনীর পেট্টোল টিমের সদস্যরাও পাল্টা গুলি বর্ষণ করে। এসময় দু’পক্ষের মধ্যে প্রায় ত্রিশ মিনিট থেমে থেমে গোলাগুলির ঘটনা ঘটে। তবে হতাহতের কোনো ঘটনা ঘটেনি।

এদিকে বিকালে উহ্লামং নামের সন্দেহভাজন আহত এক ব্যক্তি পাইন্দু মাঝের পাড়ায় মোবাইল চার্জ দিতে আসলে স্থানীয়রা তাকে আটক করে সেনাবাহিনীর কাছে সোপর্দ করে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, ওই দলের অস্ত্রধারীরা নিজেদের মগ লিবারেশন পার্টি বলে সম্প্রতি পরিচয় দিয়ে ঘুরে বেড়াচ্ছে।

মগ লিবারেশন পার্টি (MLP) নামধারীরা মায়ানমারে আরাকান আর্মি (এএ) কর্তৃক প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত। এদের নেতা- ALP-র সাবেক নেতা খয় সাইওয়াং পরিচালনা করছে। এদলে ALp সাবেক সদস্য ছাড়াও মারমা, ত্রিপুরার বিপদগামী যুবকরা রয়েছে।

পাইন্দু ইউপি চেয়ারম্যান উহ্লামং মারমা জানান, গোলাগুলি হয়েছে বলে ওই এলাকার লোকজন তাকে মুঠোফোনে জানিয়েছেন। তবে কেউ বিস্তারিত বলতে পারছেন না।

পাইন্দু উজানি পাড়া প্রধান মংরেঅং মুঠোফোনে জানান, তার পাড়ার পার্শ্ববর্তী হলে তিনি ওই সময় পাড়ায় না থাকায় এ মুহুর্ত এ ব্যাপারে বিস্তারিত বলতে পারছেন না বলে জানান তিনি।

তবে মগ লিবারেশন পার্টি নামধারী ১৮/২০ জনের এই দলটি বেশ কয়েকমাস যাবত দুর্গম এলাকায় বিভিন্ন পাড়ায় ভারী অস্ত্র-শস্ত্র নিয়ে চষে বেড়াচ্ছে বলে জানা গেছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *