রামু ব্লাড ডোনার্স এসোসিয়েশনের ব্যতিক্রমী উদ্যোগ


রামু প্রতিনিধি:

রামু ব্লাড ডোনার্স এসোসিয়েশনের উদ্যোগে আলহাজ্ব ফজল আম্বিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ে ব্লাড গ্রুপিং নির্ণয় ক্যাম্প অনুষ্ঠিত হয়েছে। এতে ৭৪৮ জন ছাত্র-ছাত্রী ছাড়াও শিক্ষক-কর্মচারি এবং শতাধিক স্থানীয় জনগণের ব্লাড গ্রুপ নির্ণয় করা হয়।

ওইদিন সকালে ব্লাড গ্রুপিং নির্ণয় ক্যাম্প উদ্বোধন করেন, আলহাজ্ব ফজল আম্বিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আমানুল হক। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন, রামু ব্লাড ডোনার্স এসোসিয়েশনের উপদেষ্টা সাংবাদিক ও ছড়াকার সোয়েব সাঈদ। বিশেষ অতিথি ছিলেন, রামু সরকারি কলেজ এর ক্যাডেট ইনচার্জ সার্জেন্ট ও রামু ব্লাড ডোনার্স এসোসিয়েশনের কার্যকরী সদস্য কপিল উদ্দিন জীবন।

ব্লাড ডোনার্স এসোসিয়েশনের এডমিন সাইদুল হক সাইদ জানান, রক্তদানে রামুর সর্বস্তুরের মানুষকে সচেতন করার উদ্দেশ্যে রামু ব্লাড ডোনার্স এসোসিয়েশনের উদ্যোগে ব্লাড গ্রুপিং নির্ণয় ক্যাম্প আয়োজন করা হয়েছে। রামুর সমাজ সচেতন সব মহলের সহযোগিতা পেলে এ উদ্যোগ আরও প্রসার লাভ করবে।

এডমিন নুরুল হুদা জানান, আর্তমানবতার সেবায় রক্তদান এবং অসহায় মানুষের জন্য রক্ত জোগাড় করাই রামু ব্লাড ডোনার্স এসোসিয়েশনের মূল লক্ষ্য।

আলহাজ্ব ফজল আম্বিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আমানুল হক জানান, রামু ব্লাড ডোনার্স এসোসিয়েশনের ব্লাড গ্রুপিং নির্ণয় ক্যাম্প একটি সময়োপযোগি উদ্যোগ। মূমুর্ষ মানুষের জীবন রক্ষার পাশাপাশি নিজেদের প্রয়োজনেও শিক্ষার্থীরা এর কারণে ভবিষ্যতে উপকৃত হবে।

সাংবাদিক সোয়েব সাঈদ জানান, মানুষের কল্যাণে নিবেদিতপ্রাণ একঝাঁক ছাত্র-যুবকের প্রচেষ্টা রামু ব্লাড় ডোনার এসোসিয়েশন। সম্পূর্ণ নিজেদের অর্থায়ন ও শ্রমে এ সংগঠনের উদ্যোগে রামুতে এ পর্যন্ত ১৪টি ব্লাড গ্রুপিং নির্ণয় ক্যাম্প অনুষ্ঠিত হয়েছে। মানুষের জন্য তাদের কর্মময় এ ত্যাগ স্মরণীয় হয়ে থাকবে। এভাবে অন্যান্য ছাত্র-যুবকরাও মানব কল্যাণমুলক কাজে ভুমিকা রাখলে এদেশ সুখি-সমৃদ্ধ দেশে পরিনত হবে।

ব্লাড গ্রুপিং নির্ণয় ক্যাম্প পরিচালনায় ছিলেন, ব্লাড ডোনার্স এসোসিয়েশনের প্রতিষ্ঠাতা এডমিন সাইদুল হক সাইদ, লোকমান, আজিজুর রহমান রাজু, কো-এডমিন নজিবুল হক, ইব্রাহিম, কার্যকরী সদস্য আদনান, সহ কার্যকরী সদস্য সাজ্জাদ, মাসুদ, বোরহান, মুরশেদ, শুভাকাঙ্খি সদস্য তানভীর মোহাম্মদ, রমজান আলী প্রমুখ।

জানা গেছে, ২০১৭ সালের ৭ নভেম্বর রামু ব্লাড ডোনার্স এসোসিয়েশনের যাত্রা শুরু হয়। কেবল ব্লাড গ্রুপিং নয়, রক্তের প্রয়োজন কিংবা অসহায় মানুষের পাশেও এ সংগঠনের সদস্যরা প্রতিনিয়ত সহায়তার হাত প্রসারিত করছে।

আলহাজ্ব ফজল আম্বিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ে ব্লাড গ্রুপিং নির্ণয় ক্যাম্পে বিদ্যালয়ের সকল শিক্ষক-কর্মচারিরাও সার্বিক সহযোগিতা দেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *