রামুর বাঁকখালী নদীতে শুরু গ্রামীণ লোকজ ঐতিহ্য ‘নৌকা বাইচ’


dsc_0886-copy

নিজস্ব প্রতিবেদক:

কক্সবাজারের রামুতে বর্ণিল আয়োজনে শুরু হলো ঐতিহ্যবাহি নৌকা বাইচ প্রতিযোগিতা। গ্রামীণ লোকজ ঐতিহ্য নৌকা বাইচ খেলা দেখতে নদীর দুই তীর মুখরিত করে তোলে হাজার হাজার নারী-পুরুষ।

শুক্রবার বিকেল ৩ টায় রামু তেমুহনী ষ্টেশনের পূর্বপাশে ওসমান সরওয়ার আলম চৌধুরী সেতু সংলগ্ন বাঁকখালী নদীতে রামু কেন্দ্রীয় নৌকা বাইচ প্রতিযোগীতা- ২০১৬ এর চেয়ারম্যান, ইউপি চেয়ারম্যান ফরিদুল আলমের সভাপতিত্বে ও  মহাসচিব আবুল বশর মেম্বারের সঞ্চালনায় এ প্রতিযোগিতার উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন কক্সবাজার সদর-রামু আসনের জাতীয় সংসদ সদস্য সাইমুম সরওয়ার কমল। তিনি বলেন, সাহিত্য, সংস্কৃতি, লোকজ ঐতিহ্যে ভরপুর পর্যটন শহর রামু উপজেলা। এখানে রয়েছে পর্যটন শিল্পের অপার সম্ভাবনা। গ্রামীণ লোকজ ঐতিহ্য নৌকা বাইচ খেলা। শত বছর আগে রামুর বাঁকখালী নদীতে রাখাইনরা নৌকা বাইচ খেলা শুরু করেন। কালক্রমে এ খেলা আমাদের ক্রীড়া-সাংস্কৃতিক ঐতিহ্যে পরিণত হয়েছে।

প্রতিযোগিতার উদ্বোধক উপজেলা চেয়ারম্যান রিয়াজ উল আলম বলেন, রামুর ক্রীড়াঙ্গনের আলোকিত মানুষরা আবহমান কাল ধরে বাঁকখালী নদীতে নৌকা বাইচ খেলা আয়োজন করে আসছেন। তাদের অনেকে আজকে আমাদের মাঝে নেই। সেই সব গুণী ক্রীড়া ব্যক্তিত্বকে স্মরণ করে তিনি বলেন, পুরোনো দিনের জনপ্রিয়তার ধারাবাহিকতা রক্ষা করতে এ প্রতিযোগিতা আয়োজন অব্যাহত রাখতে হবে।

এতে বিশেষ অতিথি ছিলেন রামু উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান এড. আবুল মনছুর চৌধুরী, রামু উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো: শাহজাহান আলী, জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি জাফর আলম চৌধুরী, মহিলা সম্পাদিকা মুসরাত জাহান মুন্নি, জেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক বাবুল শর্মা, রামু থানার ওসি তদন্ত কবির হোসেন, জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা রুস্তুম আলী চৌধুরীসহ বিভিন্ন ইউপির সাবেক ও বর্তমান চেয়ারম্যানগন।

এছাড়াও সাংবাদিক খালেদ হাসান টাপু, আয়োজক কমিটির নুরুল আমিন মাষ্টার, আবদুল মালেক চৌধুরী ভূলু, মহি উদ্দিন, আবদুর রহিম, হাসান আজিজ, আসাদ উল্লাহ, ওমর ফারুক মাসুম, সাইফুল ইসলাম খোকন, সাইফুল ইসলাম সাবেক মেম্বারসহ সকল ইউপি সদস্যবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। প্রতিযোগিতায় কক্সবাজার সদর ও রামু উপজেলার ২৬টি নৌ দল অংশ নিচ্ছে বলেও জানা গেছে।

এদিকে ‘জাজেজ রেডি, গো’ ঘোষকের মাইকে ঘোষণার সাথে সাথে বাঁকখালীর পানিতে তরঙ্গ তুলে ছুটে চলে দু’নৌকার আট মাঝি-মাল্লা। নদীর দু’পাড়ে হাজার হাজার শিশু-যুবক, নারী-পুরুষের উচ্ছাস ধ্বনি ‘মারো মারো’। প্রিয় নৌকা বাইচ দলের মাঝি-মাল্লাকে দ্রুত দাঁড় বেয়ে এগিয়ে যেতে নদীর হাঁটু-কোমর পানিতে নেমেও ‘মারো মারো’ শব্দে উজ্জীবিত করেন সমর্থকরা। উদ্বোধনী ব্যাচে রামু লম্বরী পাড়া কমিটি ও  কলঘর মিজান ভাই ভাই কমিটির মধ্যে শুভ সূচনা হয়।

image_pdfimage_print

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *