রামুর দৌছড়িখালে খেলারছলে সাঁতার কাটতে গিয়ে দশম শ্রেণির ছাত্র নিখোঁজ


নাইক্ষ্যংছড়ি  প্রতিনিধি:

রামুর কচ্ছপিয়া ইউনিয়নের দৌছড়ি খালের তেইল্ল্যচুরাকুমে খেলারছলে সাঁতার কাটতে গিয়ে এক মাদ্রাসার ছাত্র নিখোঁজ হয়েছে।তার নাম নুরুল আলম (১৯)। সে দৌছড়ি উত্তর কূল গ্রামের মো. ইলিয়াসের ছেলে। স্থানীয় ফইজুল উলুম ফাজিল ডিগ্রি মাদ্রাসার দশম শ্রেনির ছাত্র।

সোমবার সকাল ১০টায় এ ঘটনার পর থেকে তার শিক্ষক, তার মাদ্রাসার শিক্ষার্থী ও দৌছড়ির ৪ গ্রামের মানুষের মাঝে শোকের ছায়া নেমে আসে। পাশাপাশি নিখোঁজকে উদ্ধারে চেষ্টা অব্যাহত রেখেছে এলাকাবাসি।

প্রত্যক্ষদর্শী ও নিখোঁজ নুরুল আলমের বন্ধু মো. শাহীন জানান, তারা তিন বন্ধু মিলে সোমবার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে দৌছড়িখালের এ অংশে গুড়ি গুড়ি বৃষ্টির পরে দাঁড়িয়ে কথা বলছিল। কিছুক্ষণ পর তিন জনই খালের তীরে দাঁড়িয়ে খাল থেকে লাকড়ি ধরা শুরু করে। এরও একটু পরে নিখোঁজ নুরুল আলমের প্রস্তাবে খেলারছলে সাঁতার প্রতিযোগিতা দেয় এ তিন বন্ধু। এতে প্রথমে খালের পশ্চিম পাড় থেকে গলাচিপা অংশে সাঁতরিয়ে পার হয়ে যায় নুরুল আমিন। দ্বিতীয় প্রতিযোগী ছিল নুরুল আলম। সে সাতঁরিয়ে মাঝখালে গিয়ে পানির চোঁ পাকে ঘুরতে ঘুরতে এক পর্যায়ে তলিয়ে যায়। নিখোঁজ হয় সেই ১০টায়। ঘটনার পর  দুপুর সাড়ে ১২টায় কক্সবাজার থেকে ফায়ার সার্ভিসের একটি টিম ঘটনাস্থলে গেলেও তারা ফেরত যান বিফল হয়ে। সব চেষ্টা ব্যর্থ হয়ে চট্টগ্রাম থেকে ডুবুরি নিয়ে এসে যুবক নুরুল আলমকে উদ্ধারের চেষ্টা করা হবে জানালেন ফায়ার সার্ভিসের টিম লিডার নিবাস বড়ুয়া।

এদিকে স্থানীয় সমাজ সেবক মো. আলম জানান, এ ঘটনার পর থেকে নুরুল আলমের পরিবারে নেমে আসে চরম হতাশা ও শোকের ছায়া। তিনি আরও জানান, এলাকার লোকজন নিখোঁজ নুরুল আলমের হদিসে প্রানান্ত চেষ্টা চালাচ্ছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *