রামুর দক্ষিণ মিঠাছড়িতে কৃষকের বাড়িতে হামলা ও ভাংচুর


 

রামু প্রতিনিধি:

রামু উপজেলার দক্ষিণ মিঠাছড়িতে জমি নিয়ে বিরোধের জেরে কৃষক দম্পতির উপর হামলাকারীরা এবার ওই কৃষকের বসত বাড়িতে হামলা ও ভাংচুর করেছে। কেটে সাবাড় করেছে সুপারী গাছ, শষ্য ও বোরো ক্ষেতের বিপুল ফসল।

মঙ্গলবার (১৩ ফেব্রুয়ারি) ভোর ৬টার দিকে দক্ষিণ মিঠাছড়ি পূর্ব উমখালী মোক্তার বাপের পাড়া এলাকার মৃত আমির হামজার ছেলে কৃষক রশিদ আহমদের বসত বাড়ি ও কৃষি জমিতে হামলা ও ভাংচুরের ঘটনা ঘটে।

এ ঘটনায় ক্ষতিগ্রস্ত কৃষক রশিদ আহমদ জানান, দক্ষিণ মিঠাছড়ি মধ্যম উমখালী এলাকার আনোয়ারুল হকের ছেলে চিহ্নিত সন্ত্রাসী আমান উল্লাহ ও পানেরছড়া এলাকার সুলতান আহমদের ছেলে জাফর আলম ও পূর্ব উমখালী এলাকার মৃত ফয়েজ আহমদের তার ৪ মেয়ে ও ছেলে মঈনুদ্দিনের নেতৃত্বে একদল সন্ত্রাসী মঙ্গলবার ভোরে তার বসত বাড়ি, গোয়াল ঘর এবং ঘেরা বেড়া ভাংচুর করে। পরে হামলাকারীরা একই এলাকায় তাদের ভিটি জমিতে রোপনকৃত সুপারী গাছ, কৃষি জমিতে রোপনকৃত মুলা ও বোরো ক্ষেত কেটে এবং মাটিতে পূঁতে বিনষ্ট করে দেয়। এতে তার লক্ষাধিক টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে।

রশিদ আহমদ আরো জানান, এরআগে গত রবিবার (১১ ফেব্রুয়ারি) সকাল ১১টায় এসব সন্ত্রাসীরা তাকে এবং তার স্ত্রী ছুমদা খাতুনকে দা দিয়ে কুপিয়ে ও লাঠি-সোটা দিয়ে পিটিয়ে গুরুতর আহত করেছিলো। বর্তমানে তারা চিকিৎসাধিন রয়েছেন। এনিয়ে তারা থানায় লিখিত এজাহারও দিয়েছেন। এরপরও স্থানীয় কতিপয় দালাল-বখাটে লোকজনের ইন্ধনে তারা এসব অপকর্ম চালিয়ে যাচ্ছেন।

রশিদ আহমদের ছেলে মো. আমির হোছাইন জানান, একের পর এক হামলা, ভাংচুর এবং অব্যাহত হুমকীর কারণে বর্তমানে তারা চরম নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন। এজন্য তিনি জানমানের নিরাপত্তা ও হামলা-ভাংচুরের ঘটনায় সুষ্ঠু প্রতিকার চেয়ে সংসদ সদস্য সাইমুম সরওয়ার কমল, স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যানসহ পুলিশ প্রশাসনের কঠোর হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

নিউজটি রামু বিভাগে প্রকাশ করা হয়েছে

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *