রামুতে জীবন দক্ষতা এবং নেতৃত্ব বিকাশ ও উন্নয়ন প্রশিক্ষণ


রামু প্রতিনিধি:

রামুতে উগ্রবাদ ও সহিংসতা প্রতিরোধে জীবন দক্ষতা শিক্ষা এবং নেতৃত্ব বিকাশ ও উন্নয়ন শীর্ষক প্রশিক্ষণ কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়েছে। যুব সমাজের প্রতিনিধিদের অংশগ্রহণে ৬দিনের এ প্রশিক্ষণের আয়োজন করে জাগো নারী উন্নয়ন সংস্থা।

ইপসা সিভিক কনসোর্টিয়ামের সহযোগিতায় এ প্রশিক্ষণের সমাপনী অনুষ্ঠানে বক্তারা বলেন, যুবকরা সঠিক পথে চললেই যেমন দেশ এগিয়ে যাবে, তেমনি যুবকরা বিপদগামী হলেই সমাজে বিপর্যয় নেমে আসবে। তাই উগ্রবাদ, সহিংসতা, অপরাধ ও মাদকমুক্ত আদর্শ যুবসমাজ গড়ে তোলা এখন দেশের প্রতিটি নাগরিকের অন্যতম দায়িত্ব। এ দায়িত্ব পালনে সরকারি বেসরকারি সংস্থার পাশাপাশি সবাইকে ভুমিকা রাখতে হবে।

রবিবার (২৪ডিসেম্বর) বিকালে রামুর ঈদগড় সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে আয়োজিত প্রশিক্ষণ সমাপনী অনুষ্ঠানে অতিথি ছিলেন, বীর মুক্তিযোদ্ধা সিরাজুল ইসলাম রেজা। বক্তব্য রাখেন, ইপসার সিভিক কনসোটিয়াম মনিটরিং ও ইভ্যালুশন অফিসার প্রবাল বড়ুয়া।

৬দিনের প্রশিক্ষণ শুরু হয় ১৭ ডিসেম্বর। প্রথম ৩ দিন উগ্রবাদ ও সহিংসতা প্রতিরোধে জীবন দক্ষতা শিক্ষা শীর্ষক প্রশিক্ষক প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠিত হয়। ওই প্রশিক্ষণে উদ্বোধন অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন, প্রজেক্ট ম্যানেজার বিশ্বজিত ভৌমিক, জাগো নারী উন্নয়ন সংস্থার ফিল্প ফ্যাসিলিটিটেটর মোহাম্মদ জুবাইদ ও মুন্নী আকতার।

প্রশিক্ষণের প্রথম ৩দিন (১৭-১৯ ডিসেম্বর) উগ্রবাদ ও সহিংসতা প্রতিরোধে জীবন দক্ষতা শিক্ষা শীর্ষক প্রশিক্ষক প্রশিক্ষণ এবং শেষের ৩দিন (২১-২৪ ডিসেম্বর) নেতৃত্ব বিকাশ ও উন্নয়ন শীর্ষক প্রশিক্ষণ কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়। প্রশিক্ষণে ঈদগড় ইউনিয়নের ৯টি ওয়ার্ডের যুব সমাজের ১৮জন প্রতিনিধি (সভাপতি-সাধারণ সম্পাদক) অংশ নেন।

২১ ডিসেম্বর সিভিক প্রকল্পের আওতায় ঈদগড় ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ও ইউপি সদস্যদের অংশগ্রহণে ঈদগড় ইউনিয়ন পরিষদে একদিনের ওরিয়েন্টশন অনুষ্ঠিত হয়। এতে প্রধান অতিথির বক্তব্যে ঈদগড় ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ফিরোজ আহমদ ভূট্টো বলেন, সমাজে শান্তি প্রতিষ্ঠায় ছাত্র, তরুন, যুব সমাজকে সম্পৃক্ত করতে হবে। সন্ত্রাস, উগ্রবাদ, মাদকসহ যে কোন সামাজিক অপরাধ দমনে তাদের বেশি করে এগিয়ে আসতে হবে। সমাজের জনগুরুত্বপূর্ণ একাজে ইপসা প্রশংসনীয় অবদান রাখছে। তিনি এ ধরনের প্রকল্পে যে কোন ধরনের সহায়তার আশ্বাস দেন।

উল্লেখ্য ইপসা কনসোর্টিয়াম এর সহযোগিতায় জাগো নারী উন্নয়ন সংস্থা রামু উপজেলার ১১টি ইউনিয়নে উগ্রবাদ ও সহিংসতা নিরসনে সিভিক প্রকল্প বাস্তবায়ন করছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *