রামুতে অন্তঃস্বত্ত্বা গৃহবধুকে পিটিয়ে হত্যা: স্বামী পলাতক


নিজস্ব প্রতিবেদক, রামু:

রামুতে ৮ মাসের অন্তঃস্বত্ত্বা গৃহবধুকে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ পাওয়া গেছে। রামু উপজেলার জোয়ারিয়ানালা ইউনিয়নের ৭নং ওয়ার্ডের রাবার বাগান নুরপাড়া এলাকায় ঘটনাটি ঘটেছে। নিহত রোজিনা আকতার (২৪) ওই এলাকার জাহাঙ্গীর আলম মিটুর স্ত্রী। এ ঘটনার পর থেকে স্বামী পলাতক রয়েছে। পুলিশ মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য মর্গে পাঠিয়েছে।

নিহত রোজিনার বড় ভাই মো. শাহজাহান জানিয়েছেন, আগেরদিন (রোববার) অসুস্থ বাবাকে হাসপাতালে দেখতে যান রোজিনা আকতার। এ নিয়ে ক্ষিপ্ত হয়ে সোমবার (৪ জুন) সকাল ১১টার দিকে স্বামী জাহাঙ্গীর আলম মিটুসহ পরিবারের সদস্যরা তার বোনকে ব্যাপক মারধর করে। এসময় রোজিনা আকতার নিজেই ফোন করে তাকে বিষয়টি জানায়।

কিন্তু অসুস্থ বাবার চিকিৎসা নিয়ে ব্যস্ত থাকায় তাৎক্ষণিক তিনি রোজিনার শ্বশুর বাড়িতে যেতে পারেননি। বিকাল ৩টার দিকে স্থানীয় এক মহিলা রোজিনা আকতারের শ্বশুর বাড়ির পাশে পাহাড়ি ঢালুতে তার মৃতদেহ দেখতে পান। এসময় তারা তাদের বাড়িতে গিয়ে দেখেন রোজিনার স্বামীসহ পরিবারের সবাই বাড়ি ছেড়ে পালিয়েছে।

পরে খবর পেয়ে সন্ধ্যা ৬টায় রামু থানা পুলিশের উপ-পরিদর্শক ছানা উল্লাহ ঘটনাস্থলে গিয়ে রোজিনা আকতারের মৃতদেহ উদ্ধার করেন।

রোজিনার ভাই মো. শাহজাহান আরো জানান, মৃত্যুর সময় রোজিনা আকতার ৮ মাসের অন্তঃস্বত্ত্বা ছিলেন। এক বছর পূর্বে একই এলাকার মৃত ওয়াহিদুর রহমানের ছেলে জাহাঙ্গীর আলম মিটুর সাথে রোজিনার বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকে স্ত্রীকে নানাভাবে নির্যাতন করতো স্বামী জাহাঙ্গীর। জাহাঙ্গীর আলম মিটু ইয়াবা-মদ ব্যবসায় জড়িত। সে নিয়মিত ইয়াবা সেবনও করতো। তার বিরুদ্ধে মাদকসহ একাধিক মামলাও রয়েছে।

রামু থানা পুলিশের উপ-পরিদর্শক ছানা উল্লাহ জানিয়েছেন, মৃতদেহ ময়না তদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ব্যাপারে প্রয়োজনীয় আইনী ব্যবস্থা নেয়া হবে।

নিউজটি রামু বিভাগে প্রকাশ করা হয়েছে

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *