চাঁদার দাবিতে রাঙ্গামাটির বালুখালীতে টুরিস্ট বোটে আগুন


রাঙ্গামাটি প্রতিনিধি:

রাঙ্গামাটি শহরের কাপ্তাই হ্রদ ঘেরা বালুখালীর চাংপাং রেস্টুরেন্ট ঘাটে পর্যটন কমপ্লেক্সের একটি টুরিস্ট বোটে আগুন দিয়ে জ্বালিয়ে দিয়েছে মুখোশধারী সন্ত্রাসীরা। এ ঘটনায় ইঞ্জিন বোটের ব্যাপক ক্ষতি হলেও বোট চালক ও পর্যটকরা অক্ষত রয়েছেন। সন্ত্রাসীদের দাবিকৃত চাঁদা না দেয়ার কারণে পর্যটক পরিবহনে নিয়োজিত বোটে আগুন ধরিয়ে দিয়েছে বলে বোট চালক এবং স্থানীয়রা জানিয়েছেন।

শুক্রবার (১৭ নভেম্বর) দুপুরে বালুখালীর চাংপাং রেস্টুরেন্ট ঘাটে একদল মুখোশধারী সন্ত্রাসী এই হামলা চালায় বলে পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রগুলো জানিয়েছেন।

পর্যটন বোট মালিক সমিতির সহ-সভাপতি রমজান আলী জানান, রাঙ্গামাটির ঝুলন্ত ব্রীজ ঘাট থেকে সাতজন পর্যটক দুপুরে কাপ্তাই হ্রদ ভ্রমনের জন্যে একটি দেশীয় ইঞ্জিন ফাইবার বোট ভাড়ায় নেয়। দুপুরে বোটটি চাংপাং রেস্টুরেন্ট ঘাটে পৌঁছালে পর্যটকরা বোট থেকে নেমে চাংপাং রেস্টুরেন্টে যাওয়ার পর অতর্কিতভাবে দুইজন মুখোশধারী সন্ত্রাসী বোটে পেট্রোল ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেয়। এসময় বোট চালক বাবলু চাকমা হ্রদের পানিতে ঝাঁপিয়ে পড়ে নিজেকে বাঁচাতে সক্ষম হয়।

তিনি আরো জানান, প্রতিবছর আমরা উপজাতীয় সন্ত্রাসী গোষ্ঠীকে ৩৫ হাজার টাকা করে চাঁদা দিয়ে আসছি। এবছর তারা আমাদের কাছ থেকে ৮০ হাজার টাকা চাঁদা দাবি করে। আমরা এত টাকা চাঁদা দিতে অস্বীকার করলে তারা আজ বোটে আগুন লাগিয়ে দেয় বলেও তিনি জানান।

এ বিষয়ে রাঙ্গামাটি কোতয়ালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সত্যজিৎ বড়ুয়া জানান, আমরা খবর পেয়ে দ্রুত ঘটনাস্থলে গিয়ে পর্যটকদের নিরাপদে উদ্ধার করে আলাদা একটি বোটে করে রাঙ্গামাটি শহরে নিয়ে আসা হয়। তাদের মধ্যে দুইজন পুরুষ ও পাঁচজন নারী পর্যটক রয়েছে।

তিনি আরো জানান, দুইজন লোক এসে খালি বোটে আগুন ধরিয়ে দেয়। তবে এদের বিরুদ্ধে লিখিতভাবে কোন অভিযোগ পেলে মামলা পরিচালনা করা হবে বলেও তিনি জানান।

উদ্ধারকৃত পর্যটকরা চট্টগ্রামের হাটহাজারির বাসিন্দা বলে জানা গেছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *