রাঙামাটি সরকারি কলেজে ছাত্রলীগের  দু’গ্রুপের সংঘর্ষে  আহত  ৫


rangamati-al-pic01-copy

রাঙামাটি প্রতিনিধি:

রাঙামাটি সরকারি কলেজে ছাত্রলীগের  দুই গ্রুপের সংঘর্ষে  ৫ জন আহত হয়েছে। বুধবার সকালে এ ঘটনা ঘটে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, সকালে কলেজ ক্যাম্পাসে ছাত্রলীগের সভাপতি বাপ্পা গ্রুপ ও সাধারন সম্পাদক রিয়াদের গ্রুপের উপর হামলা চালায়।  হামলায়  শাওনকে বাঁচাতে গেলে বনি মাহমুদ নামের এক স্থানীয় যুবকও আহত হয়। পরে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া শুরু হলে সভাপতি বাপ্পার গ্রুপ ও রিয়াদ গ্রুপের সমর্থকদের উপর হামলার ঘটনা ঘটে। এতে রিয়াদ, পারভেজ, শাওন, বনি মাহমুদ আহত হয়। আহত ছাত্রলীগ কর্মীদের রাঙামাটি সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।  ২জন প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়ে চলে যায় এবং ৩ জনকে রাঙামাটি সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

আহত শাওন জানান, আমাদের উপর বাপ্পা গ্রুপ অতর্কিতভাবে হামলা করে। এতে আমি গুরুতর আহত হই। হামলাকারীরা হলেন-নেতা  শিমুল, মাহিম, ফাহিম এবং দীপংকর।

কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি বাপ্পা জানিয়েছেন, আমি ঘটনার সময় ক্যাম্পাসে ছিলেন না। কলেজে কিছু বহিরাগত আমাদের কর্মীদের প্রায় সময়ই কটুক্তি করে তাই সাধারন শিক্ষার্থীরা তাদের প্রতিহত করেছে। আমি কিছু জানিনা।

রাঙামাটি জেলা ছাত্রলীগের সাধারন সম্পাদক প্রকাশ চাকমা জানিয়েছেন, আগের ঘটনার তদন্তে কমিটি আমাদের প্রতিবেদন দিয়েছে। আমরা ব্যবস্থা নেয়ার আগেই তারা আবার সংঘাতে জড়িয়ে শৃঙ্খলা ভঙ্গ করেছে। এবার আমরা কঠোর পদক্ষেপ নিবো। এরকম ঘটনা অনাকাঙ্খিত।

কলেজর বাংলা বিভাগের অধ্যাপক মো: মহিউদ্দিন জানান, সকাল ১১টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। তখন আমরা অনার্স ১ম বর্ষেও ভর্তিও কার্যক্রম নিয়ে ব্যস্ত ছিলাম। তবে আমার মনে হয় পূর্ব পরিকল্পনাভাবে এই ঘটনা হয়েছে বলে তিনি জানান।

রাঙামাটি কোতয়ালি থানার অফিসার ইনচার্জ মুহম্মদ রশীদ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানিয়েছেন, পূর্ব বিরোধের জের ধরে রাঙামাটি কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি ও সাধারন সম্পাদকের দু’গ্রুপের মধ্যে এই ঘটনা ঘটেছে। তবে এখন পরিস্তিতি নিয়ন্ত্রনে আছে।

প্রসঙ্গত, এর আগে গত ২০ অক্টোবরও কলেজ ক্যাম্পাসে ছাত্রলীগের এই দুই গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। সে সময়ও বেশ কয়েকজন ছাত্রলীগ কর্মী আহত হয়। ওই ঘটনা তদন্তে একটি কমিটি হলেও সেই কমিটি তাদের প্রতিবেদন জমা দিলেও এখনো দায়ি দুইপক্ষের কারো বিরুদ্ধেই কোন সাংগঠনিক পদক্ষেপ নেয়া হয়নি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *