রাঙামাটিতে সন্ত্রাসীদের হামলায় জেলা ছাত্রলীগের সহ সম্পাদক আহত



নিজস্ব প্রতিনিধি:

রাঙামাটি জেলা ছাত্র লীগের সহ সাংগঠনিক সম্পাদক ও বিলাইছড়ি উপজেলা ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক কনক তঞ্চাঙ্গ্যাকে (২৮) বেধড়ক পিটিয়ে আহত করেছে একদল পাহাড়ী সন্ত্রাসী। কনক তঞ্চঙ্গা একুইজ্জ্যাছড়ি বেসরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক। বুধবার (২১মার্চ) সকাল ১১টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

আহত ছাত্রলীগ নেতা কনক জানান, তার ভগ্নিপতিকে নিয়ে বড় বোন লাম্বাখুলী তঞ্চাঙ্গ্যাকে চিকিৎসা করাতে রাঙামাটির উদ্দেশে নৌকাযোগে (ইঞ্জিন চালিত) আসার সময় উপজেলার ফারুয়া ইউনিয়নের তক্তানালাস্থ উত্তম পাড়া বৌদ্ধ মন্দির ঘাটে পৌঁছলে একদল পাহাড়ি যুবক তাদের বহনকারী নৌকা থামানোর জন্য নির্দেশ প্রদান করে।

ওই যুবকদের কথায় ঘাটে নৌকা থামানো হলে চারজনের একটি পাহাড়ি যুবকদল প্রথমে তাদের পরিচয় জানতে চাই। পরিচয় নেওয়ার পর তাকে এবং তার ভগ্নিপতি মনালাল তঞ্চাঙ্গ্যা (৪০) কে দেশীয় অস্ত্র-শস্ত্র দিয়ে বেধড়ক পেটাতে থাকে।

স্থানীয়রা ঘটনাস্থলে ছুটে আসলে পাহাড়ি যুবকরা পালিয়ে যায় বলে তিনি জানান। বর্তমানে তিনি এবং তার ভগ্নিপতি রাঙামাটি জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।  ঘটনাকারীদের কাউকে চিনেন না বলে জানান তিনি।

রাঙামাটি জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক প্রকাশ চাকমা তার ফেসবুকে আহত কনক তঞ্চঙ্গার রাজনৈতিক পরিচয় নিশ্চিত করে দেয়া স্ট্যাটাসে দাবী করেছেন, আঞ্চলিক রাজনীতির সশস্ত্র সন্ত্রাসী গ্রুপের বাঁধা উপেক্ষা করে সকল প্রতিকূলতার মধ্যেও বঙ্গবন্ধুর আদর্শকে লালন করে সাহসের সহিত দায়িত্ব পালন করেছে সে। ছাত্রলীগ করায় তার বড় অপরাধ। হামলাকারীদের তিনি জেএসএসের সশস্ত্র সন্ত্রাসী বলে দাবী করে তিনি ফেসবুকে লিখেছেন, ‘দেয়ালে পিঠ ঠেকে গেছে……..!!! নেতা-কর্মীদের নিরাপত্তা ও জীবন বাঁচার তাগিদে নিজের হাতে আইন তুলে নেওয়া ছাড়া আর কোন উপায় দেখছি না’।

বিলাইছড়ি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. নাছির উদ্দীন জানান, এ ঘটনায় কেউ এখনও কোন অভিযোগ দায়ের করেননি। অভিযোগ পেলে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *