রাঙামাটিতে যৌন নির্যাতনের অভিযোগে চাকমা যুবক আটক


আটক9_113690_121433

স্টাফ রিপোর্টার:
রাঙামাটিতে কিশোরীকে যৌন নির্যাতনের অভিযোগে এজহারভুক্ত চাকমা দুই যুবককে আটক করা হয়েছে। মঙ্গলবার সকাল ১১ টার দিকে জেলার বিলাইছড়ি উপজেলার বিলাইছড়ি বাজার থেকে সুনীতিময় চাকমা(৩০) ও নয়নগোতি চাকমা(৩২) নামের এই দুই যুবককে আটক করে পুলিশ।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, রাঙমাটি জেলার কতোয়ালী থানার ধুল্লাছড়ি গ্রামের সুনীল কান্তি চাকমার মেয়ে(১৭) এবছর এসএসসি পরীক্ষায় পাস করেছে। পরে উচ্চ মাধ্যমিকে অনলাইনে আবেদনের জন্য গত ২৯ মে বিলাইছড়ি বাজারের বাঙালী যুবক শিহাবের কম্পিউটারের দোকানে যায়। এসময় স্থানীয় সুনীতিময় চাকমা(৩০), কৃষ্ণসুর চাকমা(২৫), পুলক চাকমা(২৮), সুজয় চাকমা(৩০), মানিক চাকমা(৩৫), বীর উত্তম চাকমা(২৭), নেলসন চাকমা(২৮)সহ ১৫-২০ জন যুবক বাঙালী ছেলের সাথে মেয়েটির প্রেমের সম্পর্ক আছে দাবী করে তাকে দোকানের মধ্যেই আটকে ফেলে মারধোর করে। পরে তাকে টেনে হিঁচড়ে বের করে অপহরণ করে কেরণছড়ির অজ্ঞাত জঙ্গলে নিয়ে যায়। সেখানে তাকে পুণরায় মারধোর, গালিগালাজ করে করে তার চোখ বেঁধে ফেলে কাপড় চোপড় খুলে তার শরীরের বিভিন্ন অংশে হাত দিয়ে যৌন হয়রানী করে। এরপর ঘটনা কাউকে বললে তাকে মেরে ফেলা হবে হুমকি দিয়ে ছেড়ে দেয়া হয়। যুবকদের নির্যাতনে অসুস্থ হয়ে পড়া মেয়েটি ছাড়া পেয়ে গাছকাটা ছড়া আর্মি ক্যাম্পে উপস্থিত হয়ে ঘটনার বর্ণণা দেয়। এসময় মেয়েটির শরীরের কিছু অংশ রক্তাত্ত্ব দেখে সেনাবাহিনীর সদস্যরা পুলিশকে খবর দিয়ে পুলিশ মেয়েটিকে উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠায়।

পরে মেয়েটি বাদী হয়ে বিলাইছড়ি থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে একটি মামলা দায়ের করে। মামলার পর থেকে পুলিশ আসামীদের গ্রেফতারের জন্য বিভিন্ন স্থানে তল্লাসী চালালেও গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়নি। তবে মঙ্গলবার সকালে আসামীদের একটি স্থানে দেখতে পেয়ে পুলিশ তাদের গ্রেফতার করে থানায় নিয়ে আসে।

এসময় মেয়েটিকে থানায় নিয়ে আসলে মেয়েটি গ্রেফতারকৃতদের মধ্যে সুনীতিময় চাকমা নামের এজহারভুক্ত আসামীকে সনাক্ত করে।

বিলাইছড়ি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা এ ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে পার্বত্যনিউজকে জানান, দুইজনকে আটক করা হলেও এজহারভুক্ত আসামীকে রেখে বাকিজনকে ছেড়ে দেয়া হয়েছে।

image_pdfimage_print

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *