রাঙামাটিতে নিরাপত্তা বাহিনীর অভিযানে একে-২২ অস্ত্র ও গুলি ভর্তি ম্যাগজিন উদ্ধার


11114218547_10209419185011852_1859575317_n copy

রাঙামাটি প্রতিনিধি:

রাঙামাটিতে নিরাপত্তা বাহিনী ঘাগড়া এলাকায় পাহাড়ি সন্ত্রাসীদের সশস্ত্র আস্তানায় অভিযান পরিচালনা করে বিদেশী একটি একে- ২২ অটোমেটিক রাইফেল ও দুইটি গুলিভর্তি ম্যাগজিন উদ্ধার করেছে। অভিযানটি পরিচালনা হয় রবিবার দিবাগত গভীর রাতে ঘাগড়া-বড়ইছড়ি রাস্তা সংলগ্ন একটি এলাকায়।

নিরাপত্তা বাহিনী সূত্র জানায়, বর্তমানে দেশের সমতল এবং পাহাড়ী জঙ্গী সংগঠনগুলোর কাছে অস্ত্র কেনা-বেচার সাথে জেএসএস’র সম্পৃক্ততা রয়েছে বলে সম্প্রতি গোয়েন্দা সূত্রে জানা গেছে। তারা বাংলাদেশ-মায়ানমার অরক্ষিত সীমান্ত এলাকা দিয়ে নিয়মিত অস্ত্র চোরাচালান অব্যাহত রেখে চলেছে বলে একাধিক সূত্র হতে তথ্য পাওয়া যায়। তাই সুনির্দিষ্ট তথ্যের ভিত্তিতে রবিবার রাতে রাঙামাটি জেলার ঘাগড়া-বরইছড়ি রাস্তা সংলগ্ন এলাকায় নিরাপত্তা বাহিনীর একটি দল জেএসএস’র অস্ত্র চোরাচালান দলকে হাতেনাতে ধরার উদ্দেশ্যে রাত ১১ টার দিকে একটি অভিযান পরিচালনা করা হয়।

অভিযান দল জেএসএস’র অস্ত্র চোরাচালানকারী দলের গোপন আস্তানার নিকটবর্তী হওয়ার পূর্বেই জেএসএস’র সশস্ত্র অস্ত্র চোরাচালানকারী দলটি নিরাপত্তাবাহিনীর উপস্থিতি টের পেয়ে ঘটনাস্থল হতে পালিয়ে যেতে সক্ষম হয়। পরবর্তীতে নিরাপত্তা বাহিনী উক্ত এলাকায় ব্যাপক তল্লাশী চালিয়ে একটি একে-২২ (চায়নিজ এসএমজি) এবং দুইটি ম্যাগাজিন উদ্ধার করে। পালিয়ে যাওয়া সশস্ত্র চোরাচালান দলকে গ্রেফতারের নিমিত্তে নিরাপত্তা বাহিনীর অভিযান অব্যাহত আছে বলে জানা গেছে।

নিরাপত্তা বাহিনী সূত্র আরো জানায়, আঞ্চলিক এই সংগঠনটির সন্ত্রাসী শাখা সমতলের সন্ত্রাসীদের সাথে যোগসূত্র তৈরী করতে মিয়ানমার সীমান্ত দিয়ে অবৈধভাবে অস্ত্র ক্রয় করে সমতলের সন্ত্রাসীদের কাছে বিক্রয় করছে। গত ১৬ আগস্ট চট্টগ্রাম থেকে প্রকাশিক দৈনিক পূর্বকোণ পত্রিকায় এই সন্ত্রাসীদের সাথে বাংলাদেশের বিতর্কিত ও জঙ্গীবাদের সাথে অভিযুক্ত রাজনৈতিক সাথে সন্দেহজনক যোগাযোগের খবর প্রকাশিত হয়েছে।

একই সূত্র থেকে আরো জানা যায়, তারা পার্বত্য চট্টগ্রামকে উত্তপ্ত করতে নানাভাবে ষড়যন্ত্র চালাচ্ছে। বিভিন্ন সন্ত্রাসী সংগঠন ছাড়াও মিয়ানমারের বিদ্রোহী গ্রুপগুলোর কাছ থেকে তারা নিয়মিত অস্ত্র সংগ্রহ করছে বলেও শোনা যায়। পাশাপাশি, পার্বত্য চট্টগ্রামে নিজেদের একচ্ছত্র আধিপত্য বিস্তারে সংগঠনটি সর্বদা অন্যান্য পাহাড়ি আঞ্চলিক দলগুলোর উপরও হামলা অব্যাহত রেখে চলেছে বলে নিরাপত্তা সূত্র জানিয়েছে।।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *