যৌথবাহিনীর সাথে বন্ধুকযুদ্ধে নিহত সেই বুদ্ধজয় চাকমা’র দাহক্রিয়া সম্পন্ন


untitled-1-copy

দীঘিনালা প্রতিনিধি:

যৌথবাহিনীর সাথে বন্ধুকযুদ্ধে নিহত বুদ্ধজয় চাকমা(৪৫)র ধর্মীয় রীতিতে দাহক্রিয়া সম্পন্ন হয়েছে। রবিবার দীঘিনালা উপজেলার নন্দেশ্বর কার্বারী পাড়ায় নিজ বাড়ির পাশে এ দাহক্রিয়া অনুষ্ঠিত হয়। বুদ্ধজয় চাকমা গত শুক্রবার যৌথবাহিনীর সাথে বন্ধুকযুদ্ধে নিহত হয়।

রবিবার উপজেলার নন্দেশ্বর কার্বারী পাড়ায় গিয়ে দেখা যায়, এলাকাবাসী ও আত্বীয়স্বজন বৌদ্ধধর্মীয় রীতি অনুস্মরণ করে তার মরদেহ দাহ করার জন্য চিতায় নিয়ে যাচ্ছেন।

এ সময় নিহতের ছোট স্ত্রী আনন্দ বালা চাকমা জানান, ‘আমার স্বামী দীর্ঘদিন যাবৎ পরিবারের সাথে বিচ্ছিন্ন ছিল। গত দেড় বছর যাবৎ সে পরিবারের কোন প্রকার খোঁজ খবর নেয়নি। সে কি জীবিত না মৃত তাও জানতাম না! তিনি আরো জানান, গত শনিবার আমার মেয়ে জামাই দরবিন চাকমা প্রথম তার মৃর্ত্যুর সংবাদ দেন’।

নিহত বুদ্ধজয় চাকমার বড় ভাই ভূজেন্দ্র চাকমা(৫৫) জানান, গত শনিবার আমার ছোট ভাই বুদ্ধজয় চাকমার মৃত্যুর খবর  শুনে, খাগড়াছড়ি সদর থানায় তার লাশ শনাক্ত করি।

এদিকে বুদ্ধজয় চাকমা ইউপিডিএফ’র সাথে সর্ম্পক্ত নয় দাবী করে, দীঘিনালা উপজেলা পাহাড়ি ছাত্র পরিষদের সাবেক সভাপতি জহেল চাকমা জানান, আমাদের স্বসস্ত্র সংগঠন বা গ্রুপ নাই।

উল্লেখ্য, গত শুক্রবার খাগড়াছড়ি সদর উপজেলার দাতকুপিয়া এবং ভুয়াছড়ি এলাকার মধ্যবর্তী কুতুকছড়িতে যৌথ বাহিনী ও ইউনাইটেড পিপলস ডেমোক্রেটিক ফ্রন্ট(ইউপিডিএফ)এর সাথে বন্ধুকযুদ্ধ হয়। এতে ঘটনাস্থলেই বুদ্ধজয় চাকমা নিহত হয়। এ সময় ওই এলাকায় ১৩ ঘন্টা তল্লাশী চালিয়ে, ৪৯ রাউন্ডগুলিসহ একটি সাব-মেশিনগান, ৩৮ রাউন্ডগুলিসহ ১টি এম-১৬ রাইফেল, ১৫ রাউন্ডগুলিসহ ১টি বিদেশী জি-৩ রাইফেল, ১টি জি-৩ রাইফেলের ম্যাগজিন, এম-১৬ রাইফেলের ম্যাগজিন, ১টি ওয়াকিটকিসেট, ১টি মোবাইল,ও ১টি ব্যাগ উদ্ধার করে যৌথবাহিনী।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *