parbattanews bangladesh

মোবাইল ব্যবহারকারী ৮১% কিশোর প্রেমাসক্ত, ৪৫ % বিকৃত আলাপে আসক্ত

পার্বত্যনিউজ ডেস্ক:

দেশে বর্তমানে মোবাইল ব্যবহারকারীর সংখ্যা ১০ কোটির অধিক। এর মধ্যে উল্লেখ্যযোগ্য একটা অংশ শিশু-কিশোর। শিশু-কিশোরদের মধ্যে মোবাইলের নেতিবাচক ব্যবহারের প্রভাব দিন দিন ভয়াবহ আকার ধারণ করছে। সম্প্রতি রাজধানীর কয়েকটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ৩০০ শিক্ষার্থীর ওপর পরিচালিত, একটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের ইনকোর্স গবেষণার এ তথ্য উঠে এসেছে।

গবেষণায় দেখা গেছে, মোবাইল ব্যবহারকারী ৮১% কিশোর প্রেমাসক্ত, ৪৫ % বিকৃত আলাপে আসক্ত। গবেষণায় প্রাপ্ত ফলাফলে দেখা গেছে, ৩ শ শিক্ষার্থীর মধ্যে ব্যক্তিগত মোবাইল সেট আছে ১৮৬ জনের ৪টির বেশি সিম ব্যবহার করেন, ২৭জন ৩টি সিম ব্যবহার করেন ১২৯ জন, ২টি সিম ব্যবহার করেন ১৪৪ জন। গবেষণায় আরো দেখা যায়, মোবাইল ফোনে প্রতিদিন ৬ ঘন্টার বেশি কথা বলেন, ৫৫ জন ৪ ঘন্টা কথা বলেন, ৬০ জন ২ ঘন্টা কথা বলেন, ৮৫ জন মোবাইলের মাধ্যমে প্রেম হয়েছে ১৫০ জনের। মোবাইলে বিকৃত আলাপ করেন ৮৪ জন।

এ দিকে জানুয়ারি ২০০৯ এ- স্কুল, কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের ১০০ জন শিক্ষার্থীর মধ্যে পরিচালিত আরেকটি গবেষণা জরিপে নিন্মোক্ত ভয়াবহ চিত্র পাওয়া যায়। এতে দেখা যায়, ১০০ জনের মধ্যে মোবাইল ব্যবহারকারী ৯৩ জন। তরুণ ৬০, তরুণী ৪০ জন। এদের মধ্যে, ৪টির বেশি সিম ব্যবহারকারী ৯ জন, একাধিক সিম ব্যবহারকারী ৪৩ জন. সরাসরি প্রেমের সম্পর্ক রয়েছে ৮ জনের, কোনোভাবেই প্রেমের সম্পর্ক নেই ৩৫ জনের, মোবাইলের মাধ্যমে সম্পর্ক হয়েছে ৫০ জনের, দুষ্টামি বা কৌতুহলবশত বা মজা করে মোবাইলের মাধ্যমে প্রেমের/ আড্ডার সম্পর্ক হয়েছে ২৬ জনের, মোবাইলের মাধ্যমে সিরিয়াসলি প্রেমের সম্পর্ক হয়েছে ২৪ জনের, মোবাইলের মাধ্যমে একাধিক জনের সাথে প্রেমের সম্পর্ক ২২ জনের, অসম বয়সের বিপরীত লিঙ্গের সাথে মোবাইলে কথা বলেন ১৩ জন।

এছাড়া মোবাইলে অস্বাভাবিক (বিকৃত) আলাপ করেন ২৮ জন, প্রতিদিন গড়ে ৪ ঘন্টার বেশি মোবাইলে কথা বলেন ১৫ জন, প্রতিদিন গড়ে ২ ঘন্টার বেশি মোবাইলে কথা বলেন ২০ জন, প্রতিদিন গড়ে ১ ঘন্টার বেশি মোবাইলে কথা বলেন ৮ জন, মোবাইলে পরিচয়ের পর সরাসরি স্বাক্ষাৎ করেছেন ৩২ জন, মোবাইলে পরিচয়ের পর একাধিক জনের সাথে সরাসরি সাক্ষাৎ করেছেন ১৭ জন, মোবাইলে পরিচয়ের পর সরাসরি সাক্ষাৎ করতে গিয়ে দূর থেকে দেখেই পালিয়েছেন ১৫ জন তরুণ (অনেকেই একাধিক বার)। প্রতারণার উদ্দেশ্যে সম্পর্ক রেখেছেন ১১ জন। নিছক গল্প করার জন্যই ফোনালাপ করেন ১৪ জন। ফোনালাপের মাধ্যমে তরুণীদের সাথে দেখা করতে গিয়ে সর্বস্ব হারিয়েছেন ৬ জন। শারীরিক সম্পর্কে জড়িয়েছেন ১৯ জন।