মিয়ানমার-ভারত সীমান্তে ৩১৭ কিলোমিটার সড়ক নির্মাণ করবে সরকার


ডেস্ক রিপোর্ট:
পার্বত্যাঞ্চলের সীমান্ত এলাকা পূর্ণ নিয়ন্ত্রণ রাখার জন্য যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নয়নে ভারত-মিয়ানমার সীমান্ত জুড়ে নতুন সড়ক তৈরি করতে যাচ্ছে সরকার। এ সংক্রান্ত সীমান্ত সড়ক (রাঙ্গামাটি, খাগড়াছড়ি ও বান্দরবান পার্বত্য জেলা) নির্মাণ (১ম পর্যায়) প্রকল্পের অনুমোদন দিয়েছে জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটি (একনেক)।

রাজধানীর শেরে-বাংলানগরে এনইসি সম্মেলন কক্ষে একনেক চেয়ারপারসন ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে মঙ্গলবার (২০ মার্চ) দুপুরে একনেক সভায় এ প্রকল্পের অনুমোদন দেয়া হয়।

সীমান্ত সড়ক (রাঙ্গামাটি, খাগড়াছড়ি ও বান্দরবান পার্বত্য জেলা) নির্মাণ প্রকল্প-১ম পর্যায় প্রকল্পে ব্যয় ধরা হয়েছে ১ হাজার ৬৯৯ কোটি ৮৫ লাখ টাকা। এর পুরো ব্যয় সরকারি অর্থায়নে করা হবে। এটি সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগের আওতায় সড়ক ও জনপথ অধিদফতর/সদর দফতর, স্পেশাল ওয়ার্কস অর্গানাইজেশন, বাংলাদেশ সেনাবাহিনী কর্তৃক বাস্তবায়িত হবে। প্রকল্পটি বাস্তবায়নের মেয়াদ ধরা হয়েছে জুলাই- ২০১৭ হতে জুন-২০২১ পর্যন্ত।

বান্দরবান জেলার নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলা, রাঙ্গামাটি জেলার জুরাইছড়ি, বড়কল ও রাজস্থলি উপজেলা, কক্সবাজার জেলার উখিয়া উপজেলা এবং খাগড়াছড়ি জেলার বাঘাইছড়ি উপজেলাকে প্রকল্প এলাকা হিসেবে উল্লেখ করা হয়েছে।

প্রকল্পের আওতায় পার্বত্য অঞ্চলের ৩১৭ কিলোমিটার দীর্ঘ নিম্নবর্ণিত চারটি সড়ক নির্মাণের প্রস্তাবও করা হয়েছে। প্রস্তাবিত চারটি সড়ক হচ্ছে-
১. উখিয়া-আশারতলি-ফুলতলি সড়ক নির্মাণ-৪০ কিলোমিটার
২. সাজেক-শিলদাহ-বেতলিং সড়ক নির্মাণ-৫২ কিলোমিটার
৩. সাজেক-দোকানঘাট-থেগামুখ সড়ক নির্মাণ-৯৫ কিলোমিটার, এবং
৪. থেগামুখ-লইতংপাড়া-থাচ্চি-দুমদুমিয়া-রাজস্থলি সড়ক-১৩০ কিলোমিটার।

 

সভা শেষে ব্রিফিংকালে পরিকল্পনামন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল বলেন, আজকের সভায় ১৬টি (নতুন ও সংশোধিত) প্রকল্প অনুমোদন দেয়া হয়েছে। এতে মোট ব্যয় হবে ৯ হাজার ৬৮০ কোটি ৫ লাখ টাকা। এর মধ্যে সরকারি অর্থায়ন করা হবে ৯ হাজার ৫৯১ কোটি ৩ লাখ টাকা এবং সংস্থার নিজস্ব অর্থায়ন ৮৯ কোটি ৩ টাকা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *