মানিকছড়িতে দু’শতাধিক হাফেজকে মাঝে পাগড়ী প্রদান


10(2)

মানিকছড়ি,প্রতিনিধি:
মানিকছড়ি উপজেলার ঐতিহ্যবাহী কোরআন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান দারুচ্ছুন্নাহ্ হাফেজিয়া মাদ্রাসা ও এতিমখানার ২৫ বছরপূতিতে দু’দিন ব্যাপী ইসলামী মহা-সম্মেলনে প্রতিষ্ঠানের দু’শতাধিক হাফেজ’র মাঝে আনুষ্ঠানিকভাবে পাগড়ী প্রদান করেছেন উত্তর চট্টলার হযরতুল আলহাজ্ব শাহ্ মুহিব্বুল্লা বাবুনগরী(দা.বা.)।

৯ ও ১০ মার্চ দু’দিন ব্যাপী আয়োজিত ইসলামী মহা-সম্মেলনের উদ্বোধনীতে কোরআন-হাদিসের আলোকে প্রধান বক্তা হিসেবে বক্তব্য রাখেন, মাওলানা শামীম মজুমদার(ঢাকা) ও প্রধান মেহমান ছিলেন, মুফতী মীর হোসাইন।

অনুষ্ঠানের ২য় পর্বে(১০ মার্চ) ফজরের নামাজ শেষে মহা-সম্মেলনে আগত মাদ্রাসার প্রাক্তন ছাত্ররা একে একে কোরআন-হাদিসের আলোকে বয়ান রাখেন। গত ২৫ বছরে এ দ্বীনি প্রতিষ্ঠান থেকে মহাগ্রন্থ আল-কোরআনের আলোকে আলোকিত হওয়া ২৩৭ জন হাফেজ দেশের বিভিন্ন স্থানে কর্মরত রয়েছে। ফলে মাদ্রাসার আয়োজনে প্রাক্তন হাফেজদের মাঝে পাগড়ী বিতরণ অনুষ্ঠানে উপস্থিত হয়েছেন ওইসব হাফেজগণ।

শুক্রবার জুমার নামাজের পর সম্মেলনে স্থলে দলে দলে সমবেত হন প্রতিষ্ঠানে অধ্যয়নরত ও প্রাক্তন ছাত্ররা। এক পর্যায়ে হাফেজদের পদভারে মূখরিত হয়ে উঠে সম্মেলনস্থল।

সমাপনী ও পাগড়ী প্রদান অনুষ্ঠানে প্রধান মেহমান ছিলেন, উত্তর চট্টলার ঐতিহ্যবাহী দ্বীনে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বাবুনগর মাদ্রাসার প্রতিষ্ঠাতা হযরতুল আলহাজ্ব শাহ্ মুহিব্বুল্লা বাবুনগরী(দা.বা.) ও প্রধান বক্তা ছিলেন, মাওলানা কাউচার আহম্মেদ(ফরিদপুরী)।

রাত পৌনে ৯টায় গত ২৫ বছর ধরে দারুচ্ছুন্নাহ হাফেজিয়া মাদ্রাসা থেকে কোরআনে হাফেজগণকে প্রধান মেহমান নিজ হাতে পাগড়ী পড়িয়ে দেন।

এ সময় সম্মেলন স্থলে উপস্থিত ছিলেন, মাদ্রাসার পরিচালক মাওলানা মো. ফজলুল হক, প্রতিষ্ঠাতা শিক্ষক মাওলানা নূর মোহাম্মদ, মাওলানা সামছুল হক, সদর ইউপি চেয়ারম্যান মো. শফিকুর রহমান ফারুক, বিশিষ্ট ব্যবসায়ী আলহাজ্ব ডা. মো. এমদাদুল হক, ইউপি সদস্য মো. কামাল হোসেন, বিশিষ্ঠ ব্যবসায়ী ও সাবেক ইউপি সদস্য মো. ওমর আলী, বিশিষ্ঠ ঠিকাদার মো. সামায়ূন ফরাজী সামু প্রমূখ।

পরে প্রধান মেহমান বাবুনগরী মোনাজাত পরিচালনা করেন। এ সময় উপস্থিত মজলুম জনতা হাফেজদের সুস্বাস্থ্য ও বিশ্ব মজলুমদের জন্য দোয়া করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *