মাটিরাঙ্গায় শ্রীকৃষ্ণের জন্মাষ্টমীর শোভাযাত্রা


নিজস্ব প্রতিবেদক, মাটিরাঙ্গা :

বর্ণাঢ্য আয়োজনের মধ্য দিয়ে খাগড়াছড়ির মাটিরাঙ্গায় সনাতন ধর্মাবলম্বীদের অন্যতম প্রধান ধর্মীয় উৎসব ভগবান শ্রীকৃষ্ণের জন্মাষ্টমী পালিত হয়েছে।

রোববার বেলা ১১টার দিকে দিবসটি উপলক্ষে মাটিরাঙ্গা কেন্দ্রীয় শ্রী শ্রী রক্ষাকালী মন্দির প্রাঙ্গণ থেকে এক বর্ণাঢ্য মঙ্গল শোভাযাত্রা বের করা হয়।

ভগবান শ্রীকৃষ্ণের জন্মাষ্টমী উদযাপন পরিষদের আয়োজনে ও মাটিরাঙ্গা উপজেলার সনাতনী ভত্তবৃন্দের সহযোগিতায় বর্নাঢ্য মঙ্গল শোভাযাত্রার উদ্বোধন করেন মাটিরাঙ্গা উপজেলা নির্বাহী অফিসার বিভীষণ কান্তি দাশ।

এসময় মাটিরাঙ্গা পৌরসভার মেয়র ও মাটিরাঙ্গা উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মো: শামছুল হক, সনাতন সমাজ কল্যান পরিষদের খাগড়াছড়ি জেলা কমিটির সাধারন সম্পাদক সজল বরণ সেন ও মাটিরাঙ্গা সরকারী কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ প্রশান্ত কুমার ত্রিপুরা।

পরে এক বণ্যাঢ্য মঙ্গল শোভাযাত্রা মাটিরাঙ্গার গুরুত্বপুর্ণ সড়ক ঘুরে মাটিরাঙ্গা কেন্দ্রীয় শ্রী শ্রী রক্ষাকালী মন্দির প্রাঙ্গণে এসে শেষ হয়। মাটিরাঙ্গা উপজেলা সনাতন ছাত্র ও যুব পরিষদ নেতৃবৃন্দসহ দুর দূরান্ত থেকে আগত হিন্দু সম্প্রদায়ের ভক্তবৃন্দ বর্ণাঢ্য এ মঙ্গল শোভাযাত্রায় অংশ নেন।

পরে কেন্দ্রীয় শ্রী শ্রী রক্ষাকালী মন্দির প্রাঙ্গণে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে মাটিরাঙ্গা উপজেলা নির্বাহী অফিসার বিভীষণ কান্তি দাশ বলেন, ভাদ্র মাসের কৃষ্ণ পক্ষের অষ্টমী তিথিতে অত্যাচারীর বিরুদ্ধে দুর্বলের অধিকার প্রতিষ্ঠা এবং দুষ্টের দমন ও শিষ্টের পালন রক্ষায় এ ধরায় ভগবান শ্রীকৃষ্ণ অবতার হয়ে আসেন। তারা আরো বলেন, এ দিনে উপবাসে সপ্ত জন্মকৃত পাপ বিনষ্ট হয়।

আলোচনা সভায় অংশ নিয়ে বক্তারা বলেন, ভগবান শ্রীকৃষ্ণ দ্বাপর যুগের বিশৃঙ্খল ও অরক্ষিত মুল্যবোধের সময়ে পৃথিবীতে মানব প্রেমের অমৃত বাণী প্রচার ও প্রতিষ্ঠা করেছেন। পরমাত্মার সঙ্গে জীবাত্মার মিলনই সেই বাণীর মূল বিষয়। তাই তিনি ভক্ত ও বিশ্বাসীদের কাছে প্রেমাবতার।

ভগবান শ্রীকৃষ্ণের জন্মাষ্টমী উদযাপন পরিষদের সভাপতি বাবুল চন্দ্র বনিক এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন মাটিরাঙ্গা ডিগ্রী কলেজের প্রভাষক প্রদীপ দাস প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *