মাটিরাঙ্গায় ইউপিডিএফ কর্মী আটক : পিস্তল ও গুলি উদ্ধার


নিজস্ব প্রতিবেদক, মাটিরাঙ্গা :

খাগড়াছড়ির মাটিরাঙ্গার তপ্ত মাষ্টার পাড়া থেকে একটি ইউএসএ তৈরী ৭.৬৫ মি.মি পিস্তল, চার রাউন্ড তাজা গুলি ও ২টি ম্যাগজিন উদ্ধার করেছে মাটিরাঙ্গা সেনা জোনের নিরাপত্তাবাহিনীর সদস্যরা। সোমবার রাত সাড়ে আটটার দিকে উপজেলার তপ্ত মাষ্টার পাড়ায় তল্লাশী চালিয়ে নিরাপত্তাবাহিনীর সদস্যরা এসব উদ্ধার করে।

সন্তু লারমা সমর্থিত পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতির কর্মী আশুতোষ ত্রিপুরা জানায়, সোমবার রাত সাড়ে আটটার দিকে সে নিজ ঘরে ভাত খাওয়ার সময় তাকে হত্যার উদ্দ্যেশ্যে চুক্তিবিরোধী ইউনাইটেড পিপলস ডেমোক্রেটিক ফ্রন্ট-ইউপিডিএফ‘র স্বশস্ত্র সন্ত্রাসী এলিন গ্রুপের প্রধান এলিন চাকমার নেতৃত্বে প্রণব ও শুভসহ ৫/৬ জন স্বশস্ত্র সন্ত্রাসী তার ঘরের দরজা দিয়ে তাকে লক্ষ্য করে গুলি চালায়।

এসময় সে ঘরের পেছনের দরজা দিয়ে পালিয়ে কোন রকমে আত্মরক্ষা করে। এসময় স্বশস্ত্র সন্ত্রাসীরা সন্ত্রাসীরা দুই রাউন্ড ফাঁকা গুলি করে তপ্তমাষ্টার পাড়ায় আতঙ্ক সৃষ্টি করে। এ ঘটনায় তপ্ত মাষ্টার পাড়ায় আতঙ্ক বিরাজ করছে।

এদিকে ঘটনার পরপরই ঘটনাস্থল তপ্ত মাষ্টার পাড়া পরিদর্শন করেছে খাগড়াছড়ির পুলিশ সুপার মো: আলী আহাম্মদ খান। এসময় সহকারী পুলিশ সুপার রামগড় (সার্কেল) মো: ফরহাদ উদ্দিন ও মাটিরাঙ্গা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. সাহাদাত হোসেন টিটো তার সাথে ছিলেন। তিনি স্থানীয়দের কাছ থেকে ঘটনা সম্পর্কে অবহিত হন।

এসময় গুলির শব্দ শুনে মাটিরাঙ্গা সেনা জোনের জোনাল স্টাফ অফিসার মেজর ইমরুল কায়েস মেহেদী ও লেফটেন্যান্ট ইউদাদ আহমেদ এর নেতৃত্বে নিরাপত্তাবাহিনীর সদস্যরা দ্রুত ঘটনাস্থলে ছুটে যায়।

নিরাপত্তাবাহিনীর সদস্যদের উপস্থিতি টের পেয়ে এলাকা থেকে পালিয়ে যাওয়ার সময় স্থানীয় এলাকাবাসী অনিমেষ চাকমা (১৯) নামে এক ইউপিডিএফ সন্ত্রাসীকে আটক করে। এসময় তাকে স্থানীয় জনগণ গণধোলাই দিয়ে সেনাবাহিনীর হাতে সোপর্দ করে।

এলাকাবাসীর হাতে আটক অনিমেষ চাকমা বাইল্যাছড়ির বিবর্তন চাকমার ছেলে এবং ইউপিডিএফ‘র স্বশস্ত্র সন্ত্রাসী এলিন গ্রুপের সক্রিয় কর্মী।

পরে মাটিরাঙ্গা জোনের জোনাল স্টাফ অফিসার মেজর ইমরুল কায়েস মেহেদী ও লেফটেন্যান্ট ইউদাদ আহমেদ এর নেতৃত্বে নিরাপত্তাবাহিনীর সদস্যরা তাদের পালিয়ে যাওয়ার রাস্তায় তল্লাশী চালিয়ে একটি ইউএসএ তৈরী ৭.৬৫ মি.মি পিস্তল, চার রাউন্ড তাজা গুলি ও ২টি ম্যাগজিন উদ্ধার করে। সোমবার রাতে সেনাবাহিনী উদ্ধারকৃত অস্ত্রসহ ইউপিডিএফ কর্মী অনিমেষ চাকমাকে মাটিরাঙ্গা থানায় সোপর্দ করেছে।

মাটিরাঙ্গা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. সাহাদাত হোসেন টিটো ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, এলিন চাকামা ও অনিমেষ চাকমাসহ অজ্ঞাতনামা আরো ৩/৪ জনের বিরুদ্ধে আশুতোষ ত্রিপুরা বাদী হয়ে হত্যা চেষ্ঠার অভিযোগে ও মাটিরাঙ্গা থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) সুনীল চন্দ্র সুত্রধর বাদী হয়ে অস্ত্র আইনে মাটিরাঙ্গা থানায় পৃথক দুটি মামলা দায়ের করেছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *