মাটিরাঙ্গার ছাত্রলীগকে মানুষের পাশে দাঁড়ানোর পরামর্শ


নিজস্ব প্রতিবেদক, মাটিরাঙ্গা :

বাংলাদেশ ছাত্রলীগের গৌরবোজ্জ্বল ইতিহাস ও ঐতিহ্যের কথা তুলে ধরে সাবেক ছাত্রলীগ নেতৃবৃন্দ মাটিরাঙ্গা উপজেলা ও পৌরসভার প্রতিটি ইউনিটের ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের নির্যাতিত-নীপিড়িত মানুষের পাশে দাঁড়ানোর পরামর্শ দিয়েছেন মাটিরাঙ্গা উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক নেতৃবৃন্দ। তারা বলেন, ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের হতে হবে মানবিক গুণসম্পন্ন। তবেই অন্যরা তাদেরকে অনুসরণ করবে।

বৃহস্পতিবার(৪ জানুয়ারি) সকালের দিকে খাগড়াছড়ির মাটিরাঙ্গায় ছাত্রলীগের ৭০তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে বর্ণাঢ্য র‌্যালি শেষে দলীয় কার্যালয়ে মাটিরাঙ্গা উপজেলা ও কলেজ ছাত্রলীগ আয়োজিত আলোচনা সভায় তারা এসব কথা বলেন।

মাটিরাঙ্গা উপজেলা ছাত্রলীগের আহ্বায়ক ও মাটিরাঙ্গা পৌরসভার কাউন্সিলর মোহাম্মদ আলীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় মাটিরাঙ্গা উপজেলা আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক ও ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি সুবাস চাকমা, উপজেলা আ’লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি মো. আলী হোসেন, মাটিরাঙ্গা পৌর আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি ও ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক এমএম জাহাঙ্গীর আলম এবং মাটিরাঙ্গা পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও মাটিরাঙ্গা পৌরসভার প্যানেল মেয়র-১ মো. আলাউদ্দিন লিটন প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

ছাত্রলীগে কোন মাদক সেবী, সন্ত্রাসীদের স্থান নেই উল্লেখ করে বক্তারা বলেন, উচ্চ শিক্ষায় শিক্ষিত হয়ে এলাকা ও দেশের উন্নয়নে ভূমিকা রাখতে হবে। নিজেদের মেধা আর যোগ্যতাকে মানুষের প্রয়োজনে ব্যবহার করতে হবে। আগামী নির্বাচনে নৌকা বিজয় সুনিশ্চিত করতে ছাত্রলীগকে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করারও আহ্বান জানান তারা।

ছাত্রলীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপন কমিটির আহ্বায়ক মো. কামরুল ইসলামের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় কলেজ ছাত্রলীগের কাজী ইব্রাহিম খলিল, ছাত্রলীগ নেতা মো. তছলিম উদ্দিন রুবেল ও ৭নং ওয়ার্ড ছাত্রলীগের মো. রমিজ উদ্দিন প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

আলোচনা সভায় মাটিরাঙ্গা উপজেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি কালাচান বণিক, মাটিরাঙ্গা উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক মো. তাজুল ইসলাম ও মাটিরাঙ্গা উপজেলা যুবলীগের সভাপতি মো. রফিকুল ইসলামসহ আওয়ামী লীগ ও বিভিন্ন সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

এর আগে ছাত্রলীগের বিভিন্ন ইউনিটের নেতাকর্মীদের স্বতস্ফুর্ত অংশগ্রহণের মধ্যদিয়ে এক বর্ণাঢ্য র‌্যালি  উপজেলা সদরের গুরুত্বপুর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে মাটিরাঙ্গা সোনালী ব্যাংক সংলগ্ন দলীয় কার্যালয়ে গিয়ে শেষ হয়। সেখানে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের সাথে নিয়ে সাবেক ছাত্রলীগ নেতৃবৃন্দ প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীর কেক কাটেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *