মাছ চাষে সফলতার মুখ দেখছেন বাইশারীর আজিম মেম্বার


বাইশারী প্রতিনিধি:

কৃষি কাজের পাশাপাশি মাছ চাষেও সফলতার মুখ দেখেছেন বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার বাইশারী ইউনিয়নের হলুদ্যাশিয়া গ্রামের বাসিন্দা ইউপি সদস্য মো. নুরুল আজিম প্রকাশ ওরফে আজিম মেম্বার।

মাত্র তিন মাস আগে নিজ উদ্যোগে ষাট শতক জায়গা বর্গা নিয়ে ধান চাষের জমির চতুর্পাশে বাধ দিয়ে মাছ চাষ শুরু করেন। তিনি বিভিন্ন জাতের মাছের পোনা এক সাথে চাষ করেন সম্পূর্ণ নিজের বিবেক বুদ্ধি খাটিয়ে। কোনো প্রকার সরকারি মৎস্য অফিস থেকে পরামর্শ ও সহযোগিতা পাননি বলেও তিনি জানান। বর্তমানে তার প্রজেক্টে মাছের পোনাগুলো পাঁচশ থেকে এক হাজার গ্রাম হয়েছে।

সরজমিনে গিয়ে মাছ চাষী আজিম মেম্বারের সাথে কথা বলে জানা যায় আশি দিন বয়স থেকে তিনি মাছ বিক্রি শুরু করেছেন। তার প্রজেক্টে তেলা পিয়া, কার্প, পাংগাস, রুই, কাতলাসহ নানান জাতের মাছ রয়েছে। এর মধ্যে বড় হয়েছে পাংগাস, কার্প, তেলাপিয়া মাছ। বাকি গুলো এখনো সাইজের বাহিরে থাকায় বিক্রি করছেননা। তবে গতকাল একদিনে চারশত কেজি মাছ বিক্রি করে মুলধন হাতে চলে আসায় তিনি সফলতার মুখ দেখতে শুরু করেছেন বলে জানান।

সম্পুর্ণ নিজস্ব পদ্ধতিতে দেশীয় ধানের কুড়া, খইল, বাজার থেকে ক্রয় করা মাছের খাবার দিয়ে মাছ চাষ শুরু করেন। তবে মাঝে মধ্যে পুরাতন পানি পাল্টিয়ে নতুন পানি দিতে হয় বলে ও জানান। মো. নুরুল আজিম বর্তমানে বাইশারী ইউনিয়ন পরিষদের মেম্বার তিনি বসে নেই অন্য দশজন সাধারণ মানুষের মতন কৃষি কাজ ধান চাষ, সবজি, আলু টমেটোসহ বিভিন্ন ধরনের শাক সবজি আবাদ করেও তাক লাগিয়ে দিয়ছেন।

প্রত্যন্ত এলাকার মানুষের কথা চিন্তা করে বিগত কয়েক বছর ধরে মৌসুম অনুযায়ী চাষাবাদ অব্যাহত রেখেছেন। এতে তিনি একদিকে নিজের এলাকায় আমিষ জাতীয় খাদ্যের চাহিদা মিটিয়ে অন্যান্য এলাকায় রপ্তানিও করে যাচ্ছে। বর্তমানে তিনি ও সফল এলাকার লোকজনও সফল বলে দাবি করছেন।

উপসহকারী কৃষি অফিসার রফিকুল আলম বলেন আজিম মেম্বার শুধু জনপ্রতিনিধি নয় একজন সফল কৃষক হিসাবে তালিকা ভুক্ত চাষী। তাছাড়া তিনি সবচেয়ে বেশি কৃষি জমি আবাদ করে থাকেন বলেও জানান দায়িত্ব প্রাপ্ত কৃষি কর্মকর্তা। স্থানীয় বাসিন্দারা সফল চাষী আজিম মেম্বারকে পুরুস্কৃত করার দাবি জানান

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *