মহেশখালীতে গ্রাম আদালত সম্পর্কে ব্যাপক জনসচেতনতা বৃদ্ধিতে কর্মশালা অনুষ্ঠিত


মহেশখালী প্রতিনিধি:

গ্রাম আদালতকে কার্যকর করা, স্থানীয় জনগণের মধ্যে সচেতনতা বাড়ানো এবং তাদের সেবা নিতে উৎসাহ দিতে প্রকল্পভুক্ত ইউনিয়ন পরিষদ ও উপজেলা পর্যায়ে কর্মরত বিভিন্ন সরকারি ও বেসরকারি (জাতীয়,স্থানীয় ও আন্তর্জাতিক এনজিও) প্রতিষ্ঠানের অংশগ্রহণ ও সহযোগিতা কিভাবে বাড়ানো যায় তা নিয়ে মহেশখালী উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে কর্মশালার আয়োজন করা হয়।

এতে মহেশখালী উপজেলার কর্মরত বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি কর্মকর্তাসহ মোট ৪০জন অংশগ্রহণ করেন। সোমবার(২৭ নভেম্বর) সকাল ১০টা থেকে এ কর্মশালা দিনব্যাপী উপজেলা হলরুমে অনুষ্ঠিত হয়।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ আবুল কালামের সভাপতিত্বে কর্মশালায় ইউএনডিপির কক্সবাজার ডিস্ট্রিক ফ্যাসপলিটেটর আখ্যাই মং মারমা বলেন, বাংলাদেশে গ্রাম আদালত সক্রিয়করণ প্রকল্প (২য় পর্যায়) ব্লাস্ট মহেশখালী উপজেলায় জাতিসংঘের উন্নয়ন সংস্থা (ইউএনডিপি) ও ইউরোপিয়ান ইউনিয়নের যৌথ উদ্যোগে পরিচালিত ‘বাংলাদেশে গ্রাম আদালত সক্রিয়করণ (২য় পর্যায়) প্রকল্প-এর আর্থিক ও কারিগরি সহায়তায় সহযোগী সংস্থা বাংলাদেশ লিগ্যাল এইড এন্ড সার্ভিস ট্রাস্ট (ব্লাষ্ট)এর কর্মশালা আয়োজনে বিশেষ সহযোগিতা প্রদান করে।

বর্তমানে কক্সবাজার জেলার মোট ৬ উপজেলার ৩৬টি ইউনিয়নে এ প্রকল্পটি কাজ বাস্তবায়ন হচ্ছে। মহেশখালী উপজেলায় ৬টি ইউনিয়নে ৯৭২০জন নারী পুরুষের মাঝে ৬৪৮টি উঠান বৈঠক, ৮টি র‌্যালি, বিভিন্ন ভিডিও শো প্রদর্শন করেন। এই প্রকল্পের সুনির্দিষ্ট উদ্দেশ্য হলো স্থানীয়ভাবে সহজে, স্বল্প সময়ে, স্বল্প ব্যায়ে এবং স্বচ্ছ প্রক্রিয়ায় বিরোধ নিষ্পত্তিতে গ্রাম আদালতের মূখ্যঅংশীজনদের (যারা বিচারিক কাজে যুক্ত থাকবেন বিশেষভাবে ইউপি চেয়ারম্যান ও সদস্যবৃন্দ) সক্ষম করে তোলা এবং অন্যায়ের প্রতিকার লাভের জন্য তৃণমুলের দরিদ্র ও প্রান্তিক জনগোষ্ঠী, বিশেষত নারীদের সক্ষমতা বৃদ্ধিতে সহায়ক হিসেবে ভূমিকা রাখবে।

এসময় ব্লাস্ট মহেশখালী উপজেলা সম্বনয়কারী আব্দুল কাদের, উপজেলা শিক্ষা অফিসার তাজরুল ইসলাম ,উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা শামসুল আলম, ডাক্তার আশরাফুল আলম, মৎস্য কর্মকর্তা ছাবেদুল হক, সমবায় কর্মকর্তা  গোলাম মাসুদ কুতুবী, ইন্সট্রাক্টর মো. গোলাম গফুর, সমাজসেবা অফিসের প্রতিনিধি ওমর ফারুক, সাংবাদিক নেতা আমিনুল হক, মাস্টার তৌহিদা আকতার, সূর্যের হাসিক্লিনিকের ম্যানেজার সাজ্জাত হোসেন, রিক এরিয়া ম্যানেজার রাশেদুল, আনোয়ার, ওয়েস্তা সংস্থার হামিদুল হক মানিক, ইউএমটিবির মো. আব্রাহাম লিংকন, গণস্বাস্থ্য কেন্দ্র শাথা ব্যবস্থাপক লাচোখিং, ব্র্যাক কর্মসূচি সংগঠক মো. সালাউদ্দিন, নিউট্রিশন সুপারভাইজার রাখনাথ দত্ত, বাংলা জার্মান সম্প্রীতির ম্যানেজার খোরশেদ আলম, মুক্তির শাখা ব্যবস্থাপক সাগর শর্মা, বুরো বাংলাদেশের শাখা ব্যবস্থাপক মো. শামসুল আলম, উপকুল এর ম্যানেজার আনোয়ার হোসেন, আশার ম্যানেজার মো. সিরাজুল হক, সিসিডিএফ এর নির্বাহী পরিচালক সুব্রত দত্ত, কোস্ট ট্রস্ট এর সজল কুমার শীল, ইপসার প্রজেক্ট অফিসার এম আজিজুল হক, মুক্তির প্রকল্প সম্বনয়কারী ফয়সাল মাহামুদ সাকিব বাংলাদেশ মহিলা আইনজীবী সমিতির লিগ্যাল এইড কমিটির উপজেলা সম্বনয়কারী আব্দুল হান্নান, মহেশখালীজেলা ছোট মহেশখালী গ্রাম আদালত সহায়ক আব্দুল করিম উপস্থিত ছিলেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *