parbattanews bangladesh

মহালছড়ির মুবাছড়ি সড়কের বেহালদশা, দেখার কেউ নেই

মহালছড়ি প্রতিনিধি:

খাগড়াছড়ির মহালছড়ি উপজেলার মুবাছড়ি ইউনিয়নের একমাত্র সংযোগ সড়কটি গত কয়েকদিনের টানা বর্ষণের কারণে বন্যার পানিতে দু’পাশ থেকে মাটি সরে গিয়ে যানবাহন চলাচলে অযোগ্য হয়ে পড়েছে।

অন্যদিকে কালভার্টটিও এখন খুবই ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থায় পড়ে আছে। যে কোন মূহুর্তে ধসে পড়তে পারে।

এ সড়কটি মুবাছড়ি ইউনিয়ন ছাড়াও পার্শ্ববর্তী নানিয়ারচর উপজেলার সাবেক্ষ্যং ইউনিয়নবাসী এ যাবত ব্যবহার করে আসছে। ফলে দুর্ভোগে পড়েছে কয়েক হাজার সাধারণ মানুষ।

মুবাছড়ি ইউনিয়নের জনসাধারণ বেশীর ভাগই কৃষির উপর নির্ভরশীল। বিভিন্ন ফসলাদি উৎপাদন করে হাটবাজারে বিক্রি করে তারা জীবিকা নির্বাহ করে থাকেন। কিন্তু গত কয়েক সপ্তাহ যাবত এ সড়কটির উপর দিয়ে মালামাল বহনকারী যানবাহন চলাচল করতে পারছেনা। যার কারণে মুবাছড়ি ইউনিয়নের কৃষকরা উৎপাদিত ফসলাদি হাটবাজারে আনতে পারছেনা।

মুবাছড়ি ইউনিয়নের খুল্যাংপাড়া গ্রামের কৃষক জীতেশ চাকমা বলেন, সড়কটি চলাচল অযোগ্য হয়ে পড়ায় এখানকার কৃষকেরা উৎপাদিত পণ্য সময়মতো বাজারজাত করতে পারছেনা। ফলে কলা, আনারস, আমসহ বিভিন্ন প্রজাতির মৌসুমী ফলমূল পঁচে নষ্ট হয়ে যাচ্ছে। বিশেষকরে গ্রামে যারা কৃষির উপর নির্ভরশীল এই সড়কটি দ্রুত মেরামত না হলে তারা না খেয়ে মরবে। সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে জরুরী পদক্ষেপ গ্রহণের আহ্বান জানান তিনি।

এ বিষয়ে মুবাছড়ি ইউপি চেয়ারম্যান বাপ্পী খীসা বলেন, এ ব্যাপারে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে অবগত করেছি। কিন্তু এখন পর্যন্ত কোন পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়নি। সড়কটি দ্রুত মেরামত হওয়া দরকার। বর্ষার মৌসুমে সামান্য বৃষ্টি হলেই কালভার্ট ও রাস্তা দুটোই ভেঙ্গে যেতে পারে। তখন এলাকাবাসী আরও বড় ধরণের বিপদের মুখে পড়বে বলে মনে করেন তিনি।

এ সড়কটির বিষয়ে জানতে মহালছড়িতে সড়ক ও জনপথ বিভাগের কাউকে পাওয়া যায়নি।