ভূমি কমিশন আইন পাশের নামে পাবর্ত্য অঞ্চলে শান্তি বিনষ্টের ষড়যন্ত্র চলছে- খাগড়াছড়ি জেলা বিএনপি


পার্বত্য নিউজ ডেস্ক:

ভূমি কমিশন পার্বত্যাঞ্চল উত্তাল হলেও দেশের প্রধান রাজনৈতিক দলগুলোর কেন্দ্রীয় ও আঞ্চলিক কমিটি নীরব ছিল এতাদিন। বৃহৎ রাজনৈতিক দলগুলোর এই নীরবতায় পার্বত্যাঞ্চলের সাধারণ বাঙালীরা ক্ষুব্ধ হলেও নেতাদের তরফ থেকে কোনো বক্তব্য পাওয়া যায়নি। কিন্তু দেরীতে হলেও অবশেষে ভূমি কমিশন সংশোধনী নিয়ে বক্তব্য দিয়েছে দেশের অন্যতম বৃহৎ একটি রাজনৈতিক দল।

পার্বত্য খাগড়াছড়ি জেলা বিএনপি গণমাধ্যমকে পাঠানো বিবৃতিতে বলেছে, আমরা গভীর ভাবে লক্ষ্য করছি যে, পাবর্ত্য চট্টগ্রামের পরিস্থিতি দিন দিন অস্থিতিশীল হয়ে পড়ছে। সরকার ও একটি আঞ্চলিক দল আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে নির্বাচনী বৈতরনী পার করার  লক্ষে পরিকল্পিত ভাবে পাবর্ত্য পরিস্থিতিকে ঘোলাটে করছে। ভূমি কমিশন আইন পাশের নামে পাবর্ত্য অঞ্চলে শান্তি বিনষ্টের ষড়যন্ত্র চলছে।

বিবৃতিতে বলা হয়েছে, সন্ত্রাস, চাঁদাবাজী, টেন্ডারবাজী, আইন শৃঙ্খলার অবনতি, হত্যা, গুম, অপহরন, সর্বোপরি সংবিধান সংশোধনের ফলে উপজাতীয় জনগণ বর্তমান সরকারের উপর যখন ক্ষুদ্ধ, পাবর্ত্য চট্টগ্রাম পরিস্থিতি যখন খুবই নাজুক এমনি অবস্থায় সরকার পাবর্ত্য ভূমি কমিশন আইন সংশোধন করে পরিস্থিতিকে আরো অবনতির দিকে ঠেলে দিচ্ছে। পরিকল্পিত ভাবে উপজাতীয় ও বাঙালীদের মধ্যে বিরোধ তৈরি করে সাম্প্রাদয়িক দাঙ্গা বাধিয়ে নির্বাচনী ফায়দা হাসিল করতে চায়।

সরকার গত ৪ (চার) বছরে কোন উদ্যোগ নেয়নি। শেষ মেয়াদে এসে সরকার কেন ভূমি কমিশন আইনের সংশোধনী প্রস্তাব অনুমোদন করলো তা সাধারণ পাহাড়িদের কাছে পরিষ্কার। সরকারের এমন সিদ্ধান্ত নির্বাচনী বৈতরনী পার হওয়ার কৌশল ছাড়া আর কিছু নয়। উপজাতীয় জনগণ সরকারের বৈরী আচরণ ও উন্নয়ন বিমুখতার কারনে এবং ২০০১-২০০৬ সালের বিএনপির উন্নয়ন কর্মকান্ড ও আচার-আচরণে আকৃষ্ট হয়ে বিএনপিকে সমর্থন দিচ্ছে। উপজাতীয় জনগণের সমর্থন বিএনপি থেকে সরানোর লক্ষে সরকার একটি আঞ্চলিক দলকে পাবর্ত্য অঞ্চলে গুম, হত্যা, অপহরনের উসকানি দিয়ে একটি সাম্প্রদায়িক দাঙ্গা বাধিয়ে উপজাতীয় ও বাঙালীদের মধ্যে দূরত্ব সৃষ্টি করে ফায়দা হাসিল এবং বিএনপিকে ক্ষতিগ্রস্ত করতে চায়।

বিএনপি ধর্ম-বর্ণ জাতি নির্বিশেষে সকল জনগণের শান্তি ও সহ-অবস্থানের মাধ্যমে এলাকা ও জনগণের উন্নয়নে বিশ্বাসী। তাই সকল প্রকার উসকানি ও ষড়যন্ত্র সম্পর্কে সজাগ থেকে শান্তি পূর্ণ সহ-অবস্থান বজায় রাখার এবং বিএনপিকে সমর্থন দিয়ে সকলের উন্নয়নে আতœনিয়োগের জন্য পাবর্ত্যবাসীর প্রতি উদাত্ত আহবান জানাচ্ছে।

বিএনপির দাবী অতিসত্বর সংশোধিত ভূমি কমিশন আইন বাতিল তথা মহান জাতীয় সংসদে পাশ না করার জন্য আমরা উদাত্ত্ব আহ্বান জানাচ্ছি। পাশাপাশি পাবর্ত্যবাসীকে নির্বাচনের পূর্বে সরকারের পরিকল্পিত সকল প্রকার সংঘাতময় কর্মকান্ড থেকে বিরত থাকার আহবান জানাচ্ছি। আগামী নির্বাচনে বিএনপি নির্বাচিত হলে পরবর্তী সরকারের মাধ্যমে পাহাড়ে চলমান সকল সমস্যার শান্তিপূর্ণ সমাধান দেয়ার আশ্বাস দিচ্ছি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *