জনপ্রিয়তায় ঈর্ষান্বিত হয়ে মতলবী মহল প্রধানমন্ত্রীকে হত্যার চক্রান্ত করছে- ওবায়দুল কাদের


বাইশারী প্রতিনিধি:

সড়ক ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, বর্তমান সময়ে সরকার কঠিন মূহুর্ত পার করছে। শেখ হাসিনার নেতৃত্বেই এই সংকট কাটিয়ে উঠা সম্ভব। সরকার দীর্ঘ ২৭/২৮ দিন যাবৎ প্রায় আট লক্ষ রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীকে আশ্রয় দিয়ে প্রশংসিত হচ্ছে সারা বিশ্বে। বাংলাদেশ খুব একটা ধনী দেশ নয়, তবে ধনী দেশ হওয়ার পথে। প্রধানমন্ত্রীর চলমান উন্নয়ন বর্তমানে গ্রামে-গঞ্জেও ছড়িয়ে পড়েছে।

এছাড়া রোহিঙ্গা ইস্যু নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর আকাশ ছোঁয়া জনপ্রিয়তায় ঈর্ষান্বিত হয়ে দেশী-বিদেশী একটি মতলবী মহল প্রধানমন্ত্রীকে হত্যার চক্রান্ত করছে। বিশ্ব জনমতের চাপের মুখে মিয়ানমার সরকার রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নিতে বাধ্য হবে। (২৪শে সেপ্টেম্বর) রবিবার সকালে বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলা মিলনায়তনে মতবিনিময় ও ত্রাণ বিতরণ অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি আরো বলেন, দেশের উত্তরবঙ্গে বন্যায় ক্ষয়ক্ষতি কাটিয়ে উঠতে পারেনি সরকার, তার উপর আবার সীমান্ত পাড়ি দিয়ে মায়ানমার সেনাবাহিনীর হত্যাযজ্ঞ থেকে বাঁচতে প্রাণ ভয়ে পালিয়ে আসছেন রোহিঙ্গারা। তাই বর্তমানে একটা মানবিক সংকট সৃষ্টি হয়েছে।

রোহিঙ্গা ইস্যু নিয়ে একটি দল সরকারকে বেকায়দায় ফেলার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। তবে দেশের জনগনের দোয়ায় শেখ হাসিনা সরকার প্রশংসিত হচ্ছে বারবার। তিনি বলেন, বিএনপি শুধু ঢাকায় বসে প্রেস ব্রিফিং রাজনীতি করছে। রাজনীতি নয়, দল মতের উর্ধ্বে থেকে কাজ করুন। সিভিল প্রশাসনকে সহযোগিতার জন্য ইতিমধ্যেই সেনাবাহিনীকে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে।

তিনি আরো বলেন, ২৮ সেপ্টেম্বর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জন্মদিন। প্রধানমন্ত্রী নির্দেশ দিয়েছেন জন্মদিনে আনন্দ না করে এর অর্থ রোহিঙ্গাদের ত্রান হিসেবে প্রদান করার জন্য। তবে আনন্দ না করে মসজিদ, মন্দির, প্যাগোডা ও গির্জায় প্রার্থনা করা হবে প্রধানমন্ত্রীর জন্য।

প্রধানমন্ত্রী নির্দেশ দিয়েছেন রোহিঙ্গা বিষয়টি দলমত নির্বিশেষে ঐক্যবদ্ধ থেকে সমাধান করার জন্য। এছাড়া রোহিঙ্গা বিষয়ে পুলিশ-বিজিবির প্রশাসন ও সিভিল প্রশাসন ত্রান কাজে সর্বাত্ত্বক সহযোগীতা করে যাচ্ছে।

জেলা প্রশাসক দিলীপ কুমার বণিকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত মতবিনিময় সভা ও ত্রান বিতরণ অনুষ্ঠানে অন্যান্যাদের মধ্যে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক এনামুল হক শামীম, ত্রাণ বিষয়ক সম্পাদক সুজিত রায় নন্দি, প্রধানমন্ত্রীর একান্ত সহকারী সচিব সাইফুজ্জামান শেখর, স্বেচ্ছাসেবকলীগের সাধারণ সম্পাদক পঙ্কজ দেব নাথ এমপি, কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ নেতা বদরুজ্জামান সোহাগ, পুলিশ সুপার সঞ্জিত কুমার রায়, ৩১ বিজিবি’র অধিনায়ক লে.কর্ণেল আনোয়ারুল আযীম, বান্দরবান পৌর মেয়র ও জেলা আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বেবী ইসলাম, যুগ্ম সম্পাদক ও জেলা পরিষদ সদস্য লক্ষীপদ দাশ, নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলা ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান কামাল উদ্দিন, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এসএম সরওয়ার কামাল, উপজেলা আওয়ামী লীগের আহবায়ক ক্যাউচিং চাক, যুগ্ম আহবায়ক আবু তাহের কোম্পানী, সদস্য সচিব ইমরান মেম্বার, সদর ইউপি চেয়ারম্যান তসলিম ইকবাল চৌধুরী, বাইশারী ইউপি চেয়ারম্যান মোহাম্মদ আলম, দোছড়ি ইউপি চেয়ারম্যান হাবিবুল্লাহ, সোনাইছড়ি ইউপি চেয়ারম্যান বাহাইন মার্মাসহ জনপ্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।

মতবিনিময় সভা শেষে গত ২১ সেপ্টেম্বর নাইক্ষ্যংছড়ির সীমান্তে রোহিঙ্গাদের মাঝে রেডক্রিসেন্টের ত্রানবাহী গাড়ি ট্রাক উল্টে গিয়ে দূর্ঘটনায় নিহত ৯ পরিবারের মাঝে ১০ হাজার টাকা করে প্রদান করেন এবং সড়ক ও সেতু মন্ত্রীর ব্যক্তিগত পক্ষ থেকে আরো ১ লক্ষ টাকা সহযোগীতার ঘোষণা দেন। এছাড়া সদর ইউনিয়ন পরিষদের দুস্থ মহিলাদের মাঝে বিজিডির চাউল বিতরণ কার্যক্রম আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *