বার্মা সরকার ক্যাম্প নির্মাণ করছে রোহিঙ্গাদের জন্য


পার্বত্যনিউজ ডেস্ক:

বার্মা-বাংলাদেশের সম্পাদিত প্রত্যাবাসন চুক্তির আওতায় যেসব রোহিঙ্গাকে বার্মা ফেরত নিবে তাদের রাখার জন্য ক্যাম্প তৈরি করছে বার্মা প্রশাসন। বাড়ি ঘরে ফিরতে না দিয়ে ক্যাম্পে এক রকম নজরবন্দি রাখা হবে রোহিঙ্গাদের। খাদ্য, বস্ত্র, চিকিৎসা থেকে বঞ্চিত হবে আশ্রিত রোহিঙ্গারা। আরাকান থেকে নানা মাধ্যমে এমন সব তথ্য পাওয়ার পর বাংলাদেশে সাময়িক আশ্রিত রোহিঙ্গারা আবারো ভয় পেতে শুরু করেছে।

জানাগেছে, আরাকান রাজ্যের উত্তরাঞ্চলর তাওংপিওয়ো লেটওয়ে (বার্মিজ নাম) গ্রামে একটি পুলিশ চেকপোস্টের পাশেই ইতোমধ্যে দু’টি ক্যাম্প নির্মাণ করা হয়েছে রোহিঙ্গাদের রাখার জন্য। এ সম্পর্কে বার্মার সরকার বলছে ফিরিয়ে নেয়া রোহিঙ্গাদের সাময়িকভাবে ওই ক্যাম্পে রাখা হবে। এসব খবরে আতঙ্কিত রোহিঙ্গারা। তারা বার্মায় ফিরে আবারও নির্যাতনের মুখোমুখি হতে চান না।

দাতা সংস্থা অক্সফাম জানিয়েছে, বাংলাদেশের ক্যাম্পের অনেক রোহিঙ্গাই মানসিকভাবে বিপর্যস্ত। তারা নিজেদের পরিবারের লোকজনকে চোখের সামনে ধর্ষণ হতে এবং খুন হতে দেখেছেন। এ পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হলে রোহিঙ্গারা দেশে ফিরে যাবে না, প্রয়োজনে তারা আত্মহত্যা করবে।

প্রসঙ্গত ২০১২ সালের সহিংসতার পর আরাকানে প্রায় দেড় লাখ রোহিঙ্গাকে আইডিপি ক্যাম্পবন্দি করে রেখেছে প্রশাসন। তাদের কোন স্বাধিনতা নেই সেখানে।

এদিকে গতকাল শুক্রবারও ১৪২ জন রোহিঙ্গা পালিয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছে। তাদেরকে টেকনাফের নয়াপাড়া রোহিঙ্গা শিবিরে পাঠিয়েছে প্রশাসন।

 

সূত্র: Arakan Television

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *