বান্দরবানে যৌথবাহিনীর অভিযানে জেএসএসের ২ সন্ত্রাসী অস্ত্রসহ আটক


আপডেইট

vb 060915 1 copy

স্টাফ রিপোটার, বান্দরবান:
বান্দরবানের রুমা উপজেলায় যৌথবাহিনী অভিযান চালিয়ে দুটি বিদেশী অস্ত্র ও ৭০ রাউন্ড গুলিসহ জনসংহতি সমিতির (জেএসএস) দুই সদস্যকে আটক করেছে। এসময় তাদের কাছ থেকে ছুরি, চাঁদা আদায়ের রশিদ বই, মোবাইল ও নগদ টাকা উদ্ধার করা হয়।

যৌথবাহিনী সূত্র জানায়, উপজেলার রুমার চর এলাকায় রবিবার ভোর রাতে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে সন্ত্রাসীদের অস্থায়ী আস্তানায় অভিযান চালিয়ে রাঙ্গামাটির জুরাছড়ি মৃত ধন কুমারের ছেলে মিহির চাকমা (৩৩) ও রুমার ক্যচিং মারমার ছেলে উক্যচিং মারমা (২৩) কে অস্ত্র ও গুলিসহ আটক করে। অভিযান টের পেয়ে অন্যান্য সন্ত্রাসীরা পালিয়ে যায়। আটক দু’জনই জেএসএসের সদস্য বলে স্বীকার করেছে বলে দাবী করে যৌথবাহিনী।

vb 060915 2 copy

রুমা জোন কমান্ডার লে. কর্ণেল গোলাম রাব্বানী পার্বত্যনিউজকে জানায়, মেজর মেহেদীর নেতৃত্বে যৌথবাহিনীর একটি দল রুমার চর এলাকায় সন্ত্রাসীদের অস্থায়ী আস্তানায় ভোর রাতে অভিযান চালিয়ে অত্যাধনিক যুক্তরাষ্ট্রের তৈরি একে ২২ রাইফেলসহ ২০ রাউন্ড গুলি ও ৩২ বোর পিস্তলসহ ৫০ রাউন্ড গুলিসহ অস্ত্রধারী ২ জন জনসংহতি সমিতির সদস্যকে আটক করে। এসময় তাদের কাছ থেকে নগদ ২লাক্ষ ৯১ হাজার টাকা, একটি বিদেশী ছুরি, ৪টি চাঁদা আদায়ের রশিদ বই, ৫টি মোবাইল সেটসহ অন্যান্য সরঞ্জাম উদ্ধার করা হয়। এর আগে সেনাবাহিনী একই এলাকা থেকে মংনু মারমা নামের এক চাঁদাবাজকে আটক করে।

স্থানীয় ব্যবসায়ীরা জানান, দীর্ঘদিন থেকে একটি অস্ত্রধারী সন্ত্রাসী দল এলাকায় আঞ্চলিক রাজনৈতিক দল জেএসএসের নাম দিয়ে ব্যাপক চাঁদা আদায় করে আসছে।

রুমা থানার পরিদর্শক শরিফুল ইসলাম জানান, আটক দুইজনকে যৌথবাহিনী পুলিশের কাছে হস্তান্তর করেছে। তাদের বিরুদ্ধে অস্ত্র ও চাঁদাবাজীর আইনে মামলা দায়ের করা হবে।

ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন রিজিয়ন কমান্ডার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল নকিব আহম্মেদ চৌধুরীসহ সেনা বাহিনীর উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *